April 11, 2021, 3:56 pm

করোনা: হাসপাতালে ভর্তি বৃটিশ প্রধানমন্ত্রী

করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত বৃটিশ প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসনকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। ফলে সোমবার অনুষ্ঠেয় সরকারের ক্রাইসিস কমিটির নিয়মিত বৈঠকে সভাপতিত্ব করবেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী ডমিনিক রাব। হাসপাতালে বরিস জনসনের আরো পরীক্ষা নিরীক্ষা করা হবে। ১০ দিন আগে তার দেহে করোনা ভাইরাস ধরা পড়ে। ডাউনিং স্ট্রিট থেকে বলা হয়েছে, ৫৫ বছর বয়সী এই প্রধানমন্ত্রীর মধ্যে এখনও করোনার লক্ষণ বিদ্যমান। তিনি চিকিৎসকের পরামর্শ অনুযায়ী চলছেন। এ খবর দিয়েছে অনলাইন স্কাই নিউজ। প্রধানমন্ত্রী এতদিন ডাউনিং স্ট্রিটেই আইসোলেশনে ছিলেন।গতকাল খবর প্রকাশ হয় যে, তার গার্লফ্রেন্ড ক্যারি সায়মন্ডস করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত। ফলে ডাউনিং স্ট্রিটে করোনা পরিস্থিতি নিয়ে আতঙ্ক সৃষ্টি হয়। এ নিয়ে বৃটিশ মুলুকে যখন নানা কথা, তখন প্রধানমন্ত্রীকে হাসপাতালে নেয়া হলো। তবে একজন মুখপাত্র নিশ্চিত করেছেন যে, প্রধানমন্ত্রীকে পূর্ব সতর্কতামুলক হাসপাতালে ভর্তি করানো হয়েছে। তার অবস্থা খারাপ বলে নয় বা তার ইমার্জেন্সি অবস্থার সৃষ্টিও হয় নি। একই সঙ্গে বৃটেনের সব স্বাস্থ্যকর্মীর অবিশ^াস্য কঠোর শ্রমের প্রশংসা করেন তিনি। ওই মুখপাত্র জনগণকে সরকারের নির্দেশ মেনে চলতে অনুরোধ করেন। বলেন, দেশের স্বাস্থ্য ব্যবস্থাকে সুরক্ষিত রাখুন। জীবন বাঁচান। স্কাই নিউজ জানতে পেরেছে যে, বরিস জনসন রোববার দিবাগত পুরো রাত হাসপাতালে থাকবেন। উচ্চ তাপমাত্রা সহ নানা রকম জটিলতা রয়েছে এখনও তার শরীরে। এম্বুলেন্স ছাড়াই রোববার রাত ৮টার দিকে তাকে হাসপাতালে নেয়া হয়। এ অবস্থায়ও তিনি সরকারের নেতৃত্ব অব্যাহত রাখবেন বলে জানা গেছে। স্কাই নিউজকে ডাক্তার ইলি ক্যানন বলেছেন, প্রধানমন্ত্রী ১০ দিন ধরে অসুস্থ। সম্ভবত এটা একটা লাল সতর্কতা। কেউ একজন পুরোপুরি ভাল না হওয়া পর্যন্ত বলা যায় না তিনি এ অবস্থা কাটিয়ে উঠেছেন। এ অবস্থায় সব রাজনৈতিক দলের নেতারা প্রধানমন্ত্রী বরিসকে সাহস যুগিয়েছেন। তার আশু রোগমুক্তি কামনা করেছেন। হোয়াইট হাউজে নিয়মিত ব্রিফিংকালে প্রেসিডেন্ট ডনাল্ড ট্রাম্প তার জাতির পক্ষ থেকে জনসনের প্রতি শুভ কামনা পাঠিয়েছেন। তিনি শুরুতেই বলেছেন, সব মার্কিনী তার জন্য প্রার্থনা করছে। তিনি (বরিস) আমার একজন উত্তম বন্ধু। আমি নিশ্চিত তিনি সুস্থ হয়ে উঠবেন। তিনি একজন শক্তিধর মানুষ। একজন শক্তিধর ব্যক্তি। বৃটেনে লেবার দলের নতুন নেতা স্যার কিয়ের স্টার্মার টুইটে বলেছেন, প্রধানমন্ত্রী ভাল থাকুন এই প্রার্থনা করি। তিনি দ্রুত সুস্থ হয়ে উঠুন। লেবার দলের এমপি ডেভিড ল্যামি টুইটারে লিখেছেন, দ্রুত সুস্থ হয়ে উঠুন বরিস জনসন। পুরো জাতি আপনার দিকে তাকিয়ে আছে, কত তাড়াতাড়ি আপনি সুস্থ দেহে আবার ফিরে আসবেন। শুভ কামনা পাঠিয়েছেন স্কটিশ ন্যাশনালিস্ট পার্টির নেতা নিকোলা স্টার্জেন। তিনি বলেছেন, প্রধানমন্ত্রীর দ্রুত রোগমুক্তি কামনা করি। তিনি সুস্থ হয়ে উঠুন। লিবারেল ডেমোক্রেট দলের এমপি লায়লা মোরান টুইটে লিখেছেন, বরিস জনসনের দ্রুত রোগমুক্তি কামনা করি। একই সঙ্গে তিনি প্রধানমন্ত্রীর রোগমুক্তিতে প্রার্থনার জন্য বৃটিশ জনগণকে উৎসাহিত করেন। লেবার দলের এমপি জেস ফিলিপস শুভ কামনা পাঠিয়েছেন বরিস জনসন ও তার প্রেমিকা ক্যারি সায়মন্ডসের প্রতি। এই যুগল নতুন সন্তানের পিতামাতা হতে চলেছেন।
এর মধ্যে ক্যারি সায়মন্ডস (৩২) শনিবার ঘোষণা দিয়েছেন তিনি করোনা লক্ষণ নিয়ে এক সপ্তাহ বিছানায় কাটিয়েছেন। তা সত্ত্বেও তিনি বলেছেন, আমার পরীক্ষা করানো প্রয়োজন। এখন অনেকটা শক্তি ফিরে পেয়েছি। অন্যদিকে ২৭ শে মার্চ করোনা পজেটিভ ধরা পড়ার পর ১১ নং ডাউনিং স্ট্রিটেট আইসোলেশনে ছিলেন বরিস জনসন। সেখানে চ্যান্সেলরের অফিসের উপরে তিনি অবস্থান করছিলেন। কারণ, ওই অফিসের উপরে বেশ কয়েকজন সাবেক প্রধানমন্ত্রী বসবাস করা যায় এমন বড় স্থান সৃষ্টি করেছেন। সেখান থেকে বরিস জনসন ভিডিও মারফত জনগণের উদ্দেশে একটি বার্তা পাঠান এবং তাদেরকে লকডাউন কঠোরভাবে মেনে চলার অনুরোধ করেন। এ সময় তাকে বেশ বিধ্বস্ত দেখায়।

Please Share This Post in Your Social Media

error: Content is protected !!