April 16, 2021, 2:05 pm

News Headline :
পলাশে লকডাউনের ৩য় দিনের সাড়াশি অভিযানে ৫ মামলা নরসিংদীতে আরও ১ জনের মৃত্যুসহ নতুন শনাক্ত ৪৫ জন নগর স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতা লায়ন এম এ নেওয়াজের উদ্যোগে কেন্দ্রীয় ও চট্টগ্রাম মহানগর সেচ্ছাসেবক লীগের সকল অসুস্থ নেতা-কর্মীদের সুস্থতা কামনায় দোয়া মাহফিল নরসিংদীতে টেইলার্সে হামলায় গুলিবিদ্ধসহ আহত ৪ জন সোনারগাঁয়ে ১ দিনে করোনায় মৃত্যু ৩, আক্রান্ত ১১ মুসলিমদের জীবনে কোরআন ও সুন্নাকে প্রধান্য দিতে হবেঃ ডাঃ মোঃ জামাল উদ্দিন কক্সবাজারে ডাকাতির প্রস্তুতিকালে অস্ত্র ও গুলিসহ যুবক আটক।। ময়মনসিংহের ত্রিশালে দ্বীতীয় দিনের মত চলছে সর্বাত্মক লকডাউন পিরোজপুরে লকডাউন কার্যকর করতে তৎপর জেলা প্রশাসন ও জেলা পুলিশ বাজারে অনিয়মের অভিযোগ রোজাদার ব্যাক্তিদের পাশে ইফতার নিয়ে পিরোজপুর ইয়ূথ সোসাইটির কার্যক্রম মাসব্যাপী শুরু

চট্টগ্রাম ইপিজেডে কাপড় ব্যবসায়ীর হত্যাকান্ডের রহস্য উদঘাটন করেছে পুলিশ।

মোঃবিল্লাল হোসেন, চট্টগ্রাম :- নগরীর ইপিজেড থানাধীন নিউমুরিংস্থ শাহীনশাহ টাওয়ারের পাশে বুলু মাঝির মায়ের দোতলা বিল্ডিং এর সিঁড়িতে গত ০২/০৫/২০২০ ইং গলায় ফাঁস দিয়া ঝুলানো অবস্থায় মাহফুজুর রহমান (২৪) নামের এক কাপড় ব্যবসায়ীর লাশ উদ্ধার করে ইপিজেড থানা পুলিশ।আর ক্লুলেস এই হত্যাকান্ডের ঘটনায় জড়িত প্রধান ০৩ জন আসামী গ্রেফতার ও ঘটনার রহস্য উদঘাটন করেছে পুলিশ।
ইপিজেড থানাধীন নিউমুরিংস্থ শাহীনশাহ টাওয়ারের পাশে বুলু মাঝির মায়ের ত্রিপল ঘেড়া দেওয়া দোকানে পুরাতন কাপড়ের ব্যবসা করেন। উক্ত দোকানে শার্টার না থাকায় ব্যবসায়ী মাহফুজুর রহমান (২৪) প্রতিদিন কাপড় বিক্রি শেষে রাতে উক্ত দোকানে ঘুমাত। গত ০২/০৫/২০২০ ইং রাতে মাহফুজুর রহমান (২৪)’কে অজ্ঞাতনামা লোকজন হত্যা করিয়া ইপিজেড থানাধীন নিউমুরিংস্থ শাহীনশাহ টাওয়ারের পাশে বুলু মাঝির মায়ের দোতলা বিল্ডিং এর সিঁড়িতে থাকা লোহার গ্রিলের উপরের পাতাটনের সাথে নাইলনের রশি দিয়া গলায় ফাঁস দিয়া ঝুলিয়ে দেয় । সকালে স্থানীয় লোকজন লাশ দেখতে পেয়ে থানায় অবগত করলে ইপিজেড থানা পুলিশ লাশটি উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য পাঠিয়ে হত্যাকান্ডের ঘটনায় ইপিজেড থানার মামলা একটা মামলা দায়ের করেন মৃত মাহফুজের পিতা
মামলা নং-০১, তারিখ-০২/০৫/২০২০ ইং, ধারা-৩০২
#উপ-পুলিশ কমিশনার (বন্দর), সিএমপি, চট্টগ্রাম জনাব হামিদুল আলম, বিপিএম, পিপিএম, অতিরিক্ত উপ-পুলিশ কমিশনার (বন্দর), সিএমপি, দিকনির্দেশনায় এবং ইপিজেড থানার অফিসার ইনচার্জ জনাব মীর মোঃ নূরুল হুদা এর সার্বিক তত্ত্বাবধানে, ইপিজেড থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) জনাব মোহাম্মদ হোছাইন এর নেতৃত্বে ইপিজেড থানার অফিসার এসআই নজরুল ইসলাম, এসআই মোঃ জিল্লুর রহমান সহ সঙ্গীয় ফোসের চৌকশ টিম গঠন করা হয়। যেহেতু হত্যা মামলাটি একটি ক্লুলেস একটি হত্যা মামলা ছিল। উক্ত টিম ইপিজেডের অফিসারগণ উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের দিক নির্দেশনা মোতাবেক ইপিজেড থানা ও আশপাশ এলাকায় নিরবিচ্ছিন্ন অভিযান পরিচালনা করে। প্রাথমিক অবস্থায় এই ক্লুলেস হত্যাকান্ডের তদন্তে কিছুটা বেগপেতে হলেও গোপন সংবাদ ও আধুনিক তথ্য প্রযুক্তির সহায়তায় গত ১৬/০৫/২০২০ ইং তারিখ ভিকটিম মাহফুজুর রহমান (২৪)’কে হত্যাকান্ডের সহযোগী আসামী মোঃ ইয়াসিন (২০) মোঃ হৃদয় ও মোঃ সজিবের সহিত মিলে হত্যাকান্ডের ঘটনাটি সংঘটন করিয়াছে বলিয়া স্বীকার করে। তাহার তথ্যের ভিত্তিতে গত ১৭/০৫/২০২০ ইং তারিখ হত্যাকান্ডের মূল হোতা আসামী মোঃ হৃদয় (২৬), পিতা-মোঃ বেলাল, গ্রেফতার করা হয়।
এবিষয়ে ইপিজেড থানার অপারেশন অফিসার নজুরুল ইসলাম বলেন: পরিকল্পনাকারী মোঃ হৃদয় (২৬) গত ২৯/০৪/২০২০ ইং তারিখের পূর্বে ফ্রিপোর্ট মোড়স্থ মাহাফুজের দোকানে কাপড় কেনাকাটা করার জন্য যায় সেখানে আসামী মোঃ হৃদয়ের সাথে ভিকটিম মাহফুজের কাপড় কেনাকাটা নিয়া বাকবিতান্ড ও তর্কাতর্কি হওয়ার কারণে তারা মাহফুজ কে হত্যা করা হয় বলে জানা যায়। বর্তমানে হত্যা মামলা তাদের আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে।

Please Share This Post in Your Social Media

error: Content is protected !!