April 20, 2021, 7:51 am

News Headline :
চাঁদপুরে সাংস্কৃতিক অঙ্গনে শোকের মাতম: তাহমিনা হারুন আর নেই! ভারতে ১৮ বছর হলেই নেওয়া যাবে করোনার টিকা পলাশে পথচারীদের মাঝে স্বপ্নপূরণ সংঘ’র ইফতার বিতরণ হেফাজত নেতা মামুনুল গ্রেফতারের প্রতিবাদে কচুয়ায় ইউনিয়ন পরিষদ ভবনে হামলা-ভাংচুর ॥ গ্রেফতার ৩ চাপদিয়ে ঋণ আদায়ের অপরাধে জাগরণী চক্র ফাউন্ডেশনকে জরিমানা মেহেদীর রং মোছার আগেই নববধূর আত্মহত্যা হেফাজত নেতাকর্মীদের হামলায় ওসিসহ ৭ পুলিশ আহত চাঁদপুরে যেভাবে করোনা ল্যাব এবং সেন্ট্রাল অক্সিজেন হয়ে গেছে, সেভাবে আইসিইউও হয়ে যাবে ————————-ডাঃ জেআর ওয়াদুদ টিপু ময়মনসিংহের ত্রিশালে মোবাইল কোর্টের জরিমানা রাণীনগরে ড্রামে ভাসমান লাশ

চাঁদপুরে জাটকা সংরক্ষণ সপ্তাহ উপলক্ষে জেলেদের মাঝে ভ্যান গাড়ী বিতরণে অনিয়ম, ৩ সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠন

সাইদ হোসেন অপু চৌধুরী, চাঁদপুরঃ
চাঁদপুরে জাটকা সংরক্ষণ সপ্তাহ উপলক্ষ্যে নিবন্ধিত জেলেদের মাঝে বিকল্প আয়বর্ধনমূলক কার্যক্রমের অংশ হিসেবে উপকরণ বিতরণের জন্য আনা হয়েছিলে ২০টি ভ্যান গাড়ি। কিন্তু সঠিক যাচাই বাছাই না থাকার কারণে নিবন্ধিত জেলে হলেও পেশা পরিবর্তন করে অন্য পেশায় থাকা ব্যাক্তিদের মাঝে বিতরণ হয়ে যায় বেশ কয়েকটি ভ্যান গাড়ি। এরপরেই সাংবাদিকদের দেয়া তথ্য জেনে বিতরণ বন্ধ হয়ে যায়। রক্ষা হয় সরকারি সম্পদ।

বুধবার (৭ এপ্রিল) সকালে চাঁদপুর জেলা প্রশাসক কার্যালয়ের সম্মুখে জেলা প্রশাসন ও জেলা মৎস্য বিভাগের বাস্তবায়নে জেলেদের মাঝে উপকরণ বিতরণ কালে এই ঘটনা ঘটে।

করোনা পরিস্থিতির কারণে নির্দিষ্ট সময়ে বেশ কয়েকটি ভ্যান গাড়ি বিতরণও করেন জেলা প্রশাসক অঞ্জনা খান মজলিশ। এ সময় চাঁদপুর পৌরসভার মেয়র মো. জিল্লুর রহমান জুয়েল, চাঁদপুর জেলা মৎস্য কর্মকর্তা মো. আসাদুল বাকী বিতরণ কার্যক্রমে উপস্থিত ছিলেন। অপেশাদার জেলেদের মাঝে ভ্যান গাড়ি বিতরণ বিষয়টি উপস্থিত সকলে অবাক হন। জেলা মৎস্য বিভাগের এমন কান্ডে দায়িত্বশীলতার অভাব রয়েছে বুঝতে পেরে জেলা প্রশাসক ভ্যান গাড়ি বিতরণ বন্ধ এবং যেগুলো বিতরণ হয়েছে সেগুলো ফেরৎ আনার জন্য তাৎক্ষনিক নির্দেশনা প্রদান করেন।

এদিকে কি কারণে অপেশার লোকদের হাতে জেলেদের উপকরণ বিতরণ হয়েছে বিষয়টি তদন্ত করে প্রতিবেদন দেয়ার জন্য ৩ সদস্য বিশিষ্ট কমিটি গঠন করে দিয়েছেন জেলা প্রশাসক অঞ্জনা খান মজলিশ। তদন্ত কমিটির আহবায়ক চাঁদপুর সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সানজিদা শাহনাজ ও সদস্য সচিব নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ইমরান মাহমুদ ডালিম।

চাঁদপুর জেলা মৎস্য কর্মকর্তা মো. আসাদুল বাকি উপস্থিত সাংবাদিকদেরকে বলেন, নিবন্ধিত জেলেদের এই তালিকাটি আগের। যার কারণে অপেশাদার লোক থাকতে পারে।

এদিকে খোঁজ নিয়ে জানাগেছে, যেসব ব্যাক্তিদের জেলে হিসেবে আনা হয়েছে ভ্যান গাড়ি দেয়ার জন্য, তারা কেউ মৎস্য আড়তের কর্মচারী, কেউ সমিতির কর্মচারী। এভাবে বিগত দিনেও সঠিক তদন্ত না থাকার কারণে প্রকৃত জেলেরা বাদ পড়ে আসছে সরকারি সুবিধা থেকে। জেলে তালিকা তৈরী করার সময় দায়িত্বশীলতার অভাব ও দুর্নীতিতে জড়িয়ে পড়েন স্থানীয় এক শ্রেনীর জনপ্রনিধি। ভোটের জন্য অপেশাদার লোকদেরকেও জেলে তালিকায় অন্তর্ভুক্ত করেন। অপেশাদার জেলেদের সুবিধা গ্রহন নিয়ে চাঁদপুরের গণমাধ্যমে এমন সংবাদ বহুবার প্রকাশিত হয়েছে। বিশেষ করে জাটকা ও মা ইলিশ সংরক্ষণ সময়ে এ ধরণের তথ্য বেরিয়ে আসে।

Please Share This Post in Your Social Media

error: Content is protected !!