April 11, 2021, 4:11 pm

ছাতক-দোয়ারার প্রতিটি এলাকায় খাদ্য সামগ্রী পৌঁছে দিচ্ছেন সাবেক সাংসদ মিলন

এস এন শরীফ, দোয়ারাবাজারঃ “করোনা ভাইরাস” (কোভিড-১৯) এর সংক্রমণে সারাদেশের মতো সুনামগঞ্জ জেলার ছাতক-দোয়ারাবাজারও লকডাউন।
দেশের পরিস্থিতি স্বাভাবিক না হওয়া পর্যন্ত লকডাউন থাকবে, এমতাবস্থায় দিনমজুর ও অসহায় মানুষদের জন্য পরিবার নিয়ে স্বাভাবিক জীবন-যাপন করা দুঃসাধ্য!
সুনামগঞ্জ-৫ (ছাতক-দোয়ারা) সংসদীয় আসনের সাবেক সংসদ সদস্য, সুনামগঞ্জ জেলা বিএনপির সম্মানিত সভাপতি জনাব কলিম উদ্দিন আহমদ মিলন, ব্যক্তিগত উদ্যোগে ছাতক পৌরসভা, ছাতক ও দোয়ারাবাজারের বিভিন্ন এলাকায় প্রায় প্রতিদিনই দরিদ্র ও অসহায় মানুষদের জন্য খাদ্য সহায়তা পৌঁছে দিচ্ছেন।
পরিস্থিতির কারণে জনসমাগম এড়াতে সব এলাকায় তিনি একান্ত ২/৩ জন মানুষকে সাথে নিয়ে এসব খাদ্য সামগ্রী পৌঁছে দিচ্ছেন, এমনকি কোনো কোনো জায়গায় নিজে মোটর সাইকেল ড্রাইভ করে একাই মানুষদের জন্য খাদ্য সহায়তা করছেন।
ভাইরাস সংক্রমণের প্রাথমিক অবস্থায় তিনি সুনামগঞ্জ, ছাতক ও দোয়ারাবাজারের গুরুত্বপূর্ণ এলাকা ও বাজারে মানুষকে সচেতন করার জন্য কাজ করেন, এছাড়াও
জেলা বিএনপির সভাপতি হওয়ায়, জেলা বিএনপির সকল সদস্য, বিভিন্ন উপজেলা ইউনিট এবং অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনের নেতৃবৃন্দকে নিজ নিজ এলাকায় দরিদ্র ও অসহায় মানুষদের পাশে দাড়ানোর জন্য নির্দেশনা দেন।
এ বিষয়ে জানতে চাইলে জনাব মিলন বলেন, “এই মূহুর্তে পুরো দেশের মানুষের উচিত স্বাস্থ্যবিধি মেনে নিজ নিজ ঘরে থাকা তবে আমাদের মতো জনবহুল ও দরিদ্র দেশে মধ্যবিত্ত, নিম্নমধ্যবিত্ত ও নিম্নবিত্ত মানুষদের জন্য ঘরে থেকে স্বাভাবিক জীবন-যাপন করা প্রায় অসম্ভব এজন্য আমি একজন রাজনীতিবিদ ও জনগণের প্রতিনিধি হিসেবে অন্তত আমি এই কঠিন দুঃসময়ে আমার সাধ্যনুযায়ী জনগণের পাশে দাড়ানো আমার নৈতিক দায়িত্ব মনে করি, পরিস্থিতি স্বাভাবিক না হওয়া পর্যন্ত আমি এভাবে আমার নির্বাচনী এলাকার মানুষের পাশে থাকব ইনশাআল্লাহ,
তিনি আরও বলেন, এখন জনপ্রতিনিধিরা হোম কোয়ারেন্টাইন পালনের সময় নয়, সকল রাজনৈতিক দলের নেতৃবৃন্দ ও জনপ্রতিনিধিদের উচিত এসময়ে জনগণের পাশে থাকা”।।

Please Share This Post in Your Social Media

error: Content is protected !!