April 11, 2021, 4:52 pm

ছুটি লকডাউন ও নারীর মানসিক স্বাস্থ্য

সাবিএী রানী ঘোষ:
যে নারী বিভিন্ন সংস্থায় সরকারী বেসরকারী বাইরের কাজ করেন, ছুটির দিনগুলিতে তিনি ঘরের সবকাজে গুরুত্বসহকারে দায়িত্ব পালন করে থাকেন। তেমনি বতমান সময়কার কথা বলছি, লকডাউন এই সময় গৃহিনীরা ছুটি পাননি বরং এসময় গৃহিনীদের, ছুটিপাপ্ত নারীদের গৃহকএীর উপর কাজ জেনও বেড়ে চলছে কয়েকগুন। এসময় লকডাউন ছুটিতে এান্তিকালে পরিবার সবাই যেহেতু ঘরে তাই স্বাভাবিক চেয়ে খাবারের চাহিদা থাকছেন পতিনয়ত, আর খাবার তৈরির ব্যপারটা মুলতঃ গৃহকএীর উপর বতায়। এমনিতে পতিদিন খাবার তিনবেলা বতমানে কিন্তু পাচবেলা চলছে, খাবার তৈরীর চাহিদাও বেড়ে গেছে এমশঃ।আর তিনবেলা হোক পাচবেলা যথারীতি এ মহান মানুষটি গৃহকএীর উপর সামলাতে হয়। নারীকে সময়ই নয় তাকে শম দিতে হচ্ছে। কারও কারও বাসা বাড়ীতে বান্দা বা ছুটা লকডাউনের কারনে আসতে না পারার ঘাটতির কারনেও কিন্তু গৃহিনীকে সংসার সবটুকু দায়িত্ব একা হাতে নিতে হচ্ছে। সংসার সকাল থেকে বিছানায় যাবার আগ পযন্ত রান্নাবান্না স্বামি সন্তান শিশু থেকে বৃদ্ব পরিস্কার পরিচ্ছন্ন এ গৃহিনিকে করতে হচ্ছে, যদিও কিছু কিছু পরিবার পুরুষ সদস্যরা হাত মেলায় টুকটাক সাহায্য সহযোগিতা করে থাকলেও এটা সংখ্যাশ কম।
এ লকডাউন এ ছুটি নারীকে আরও কাজের মানসিক দৈহিক চাপ বাড়িয়ে দিচ্ছে, পরিবারের বৃদ্ব অসুস্থ ব্যক্তি সন্তানাদি সব একার হাতে গৃহকএীকে ভরসা করছেন। কিছু কিছু পরিবার একঘেয়েমি কারনে নারীদের ওপর সকল দায়িত্ব পড়ে। তখন নারীর মানসিকভাবে বিপযস্ত হয়ে পড়ছে, নারীর মন বিষন্নতায় ভরে উঠে। একসময় বড় সমসা হয়ে দাড়ায়, সময় থাকতে নারীর তথা গৃহিনীর মানসিক স্বাস্থ্যের পতিযত্নশীল হতে হবে।যে নারী বাইরে কাজে অভস্ত সে ঘরের এত কাজ চাপ নিতে পারাটা একসময় হাফিয়ে উঠবেন। মনের উপর চাপ সৃস্টি হবে, পরবতিতে বিভিন্নপকার শারিরীকভাবে ভেঙে পড়তে পারেন, আবার কিছু কিছু নারী ভিতরে মানসিকরোগীর মতো হয়ে যান তার মেজাজ খিটখিটে সামান্য বিষয়ে রেগে যাওয়া, ভিতরে রাগ পুষে রেখে একসময় বিরাট মানসিক সমস্যার সৃস্টি হতে পারে।
আমরা এককভাবে গৃহিনীকে পরিবারের সবার কাজ চাপিয়ে না দিয়ে মিলে মিশে দায়িত্ব ভাগ করে নেয়া যেতে পারে, ওনাকে খানিকটা বিশামের ব্যবস্থা করা, না নাশতা তৈরির পর একসাথে বসে আড্ডা দেয়া হাসিগল্প ভাগ করে নেয়া এককথায় ওনাকে সময় দিন দিতে হবে।
দিনেরপর দিন খেটে যাচ্ছেন ওনাকে শুনতে ও বলতে সুযোগ দান করে দিতে হবে, একটা বিঢয় মনে রাখতে হবে নারীর মনের অবস্থা মানসিকতা সুস্থতা এ ছুটির সময়ে লকডাউন কালীন পরিবারের সকলের ভুমিকা অত্যন্ত গুরুত্বপূন।
সব দূযোগেই নারীদের নাজুক অবস্থা থাকে,ঘরের কাজ থেকে শুরু করে সবকিছুই দায়িত্ব বেড়ে যায়। কোভিড-১৯ এর মতো ভিন্ন দূযোগ মোকাবিলা নারীদের অবস্থা করুন ও ভয়াবহ।
লকডাউন নারীর উপর মরার উপর খাড়ার ঘা হিসেবে যুক্ত হয়েছে,
একবার ভাবুন নারীর জন্য চ্যালেন্জ কোভিড-১৯ দূযোগ মোকাবিলা

Please Share This Post in Your Social Media

error: Content is protected !!