চাঁদপুরে মৃত গরুর গোস্ত বিক্রি করতে এনে ধরা বিপনীবাগের কসাই আনোয়ার

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ
শরীয়তপুর জেলার সখিপুর থেকে মৃত গরুর গোস্ত বিক্রি করার জন্য আনলেন চাঁদপুর বিপনিবাগের ব্যবসায়ি আনোয়ার হোসেন আনু। কিন্তু শেষ রক্ষায় হয়নি, ধরা পড়তে হয়েছে তাকে।

ঘটনার বিবরনে জানাযায়, মঙ্গলবার (৮ নভেম্বর) ভোর সাড়ে ৬ টায় চাঁদপুর ডাকাতিয়া নদীর পাড় সংলগ্ন পৌর কসাই খানায় সখীপুর থেকে ইঞ্জিন চালিত ট্রলার যোগে গরুর গোস্ত নিয়ে আসা হয়। এসময় ট্রলার থেকে গোস্ত নামানোর সময় দূর্গন্ধ ছড়িয়ে পড়লে স্থানীয় লোকজন পৌর ৬ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর মুহাম্মদ সোহেল রানাকে দেখতে পেয়ে বিষয়টি জানায়।
পরে কাউন্সিলর সোহেল রানা সেখানে যায়এবং তার উপস্থিতি টের পেয়ে মূহুর্তেই গোস্ত গুলো রেখে ট্রলার চালক আলমগীর ট্রলার নিয়ে পালিয়ে যায়। পরে কাউন্সিলর সোহেল রানা কসাই খানার লোকজন নিয়ে গোস্ত গুলো মাটিতে পুতে পেলে।

এসময় সেখানেই নীরব দর্শকদের ভূমিকায় দাড়িয়ে ছিলেন চাঁদপুর বিপনিবাগের গোস্ত ব্যবসায়ি কসাই আনোয়ার হোসেন আনু।

এবিষয়ে ব্যবসায়ী আনু বলেন, এগুলো আমার গুস্ত না। এবিষয়ে ট্রলার চালক আলমগীর বলতে পারবে।

ট্রলার চালক আলমগীর মঠোফোনে জানান, ৭ নভেম্বর রাতে সখিপুরের গরুর ব্যবসায়ির ফার্মে আগুন লাগে। এসময় ৪ টি গরু মারাযায় ও কিছু গরুর অনেকাংশ পুড়ে যায়। সেই গরুর গোস্ত সাখিপুরের ওনারা নিছে আর বাকি ২৫০ কেজি বিপনিবাগের ব্যবসায়ি আনু অর্ডার দিয়েছে।

কাউন্সিলর সোহেল রানা বলেন, আমি সকালে ব্রিজের উপর হাটতে বেরিয়ে ছিলাম এসময় স্থানীয় লোকজন আমাকে বিষয়টি জানালে আমি তাৎক্ষণিক সেখানে যাই। আমি সেখানে পৌঁছার সাথে সাথে ট্রলার চালক ট্রলার নিয়ে পালিয়ে যায়। এসময় বিপনিবাগের গরুর গোস্ত ব্যবসায়ি আনুকে দেখে জিজ্ঞেস করলে সে বলে আমি কিছুই জানিনা। পরে সে সেখান থেকে কেটে পড়ে। পরে আমি কসাই খানার লোকজন নিয়ে গোস্ত গুলো মাটিতে পুতে ফেলি। পরে খবর পেয়ে চাঁদপুর মডেল থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে যায়।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

আজকের দিন-তারিখ
  • বৃহস্পতিবার (ভোর ৫:৪১)
  • ৮ই ডিসেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ
  • ১৪ই জমাদিউল আউয়াল, ১৪৪৪ হিজরি
  • ২৩শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ (হেমন্তকাল)
পুরানো সংবাদ
সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
 
১০১১
১২১৩১৪১৫১৬১৭১৮
১৯২০২১২২২৩২৪২৫
২৬২৭২৮২৯৩০৩১