November 28, 2021, 8:01 am

News Headline :
কচুয়ায় নিরাপদ সড়কের দাবীতে মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সমাবেশ আওয়ামী লীগের দলীয় মনোনয়ন প্রত্যাশী আব্দুস সালাম সওদাগর আগামী ৫ জানুয়ারি ৫ম ধাপে অনুষ্ঠিত হচ্ছে কচুয়ার ইউপি নির্বাচন ফলোআপ: চারদিনে ও নিহত তিন শিক্ষার্থীর পরিবারকে শান্তনা দিতে পাশে দাঁড়ানি কেউ হাইমচর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সভাপতি মোতালেব জমাদার ১ম মৃত্যু বার্ষিকী পালিত হয়েছে। এম ই ফাউন্ডেশনের আয়োজনে নিউ বিজনেস ক্রিয়েশন প্রশিক্ষণ কর্মশালা শেষে সনদপত্র বিতরণ ভুয়া স্বাক্ষর ব্যবহার করে বিভিন্ন দফতরে মিথ্যা অভিযোগ, প্রতিবাদে মানববন্ধন সোনারগাঁয়ে ১০ কেজি গাঁজাসহ ০২ মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার, প্রাইভেটকার জব্দ। রাউজান দক্ষিন হিংগলা তৈয়্যবিয়া স্মৃতি সংসদের উদ্যোগে চালু হলো সাপ্তাহিক ফ্রি হোমিও চিকিৎসা ক্যাম্প আগামীকাল ফুলবাড়ী ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন,বিশৃঙ্খলা রোধে তৎপর প্রশাসন।

ইয়াস থেকে বাংলাদেশ ঝুঁকিমুক্ত

নিউজ ডেস্কঃ

অতি শক্তিশালী ঘূর্ণিঝড় ইয়াস ভারতের ওড়িশাতে আঘাত হেনে উপকূল অতিক্রম করছে। এর প্রভাবে বাংলাদেশের উপকূলীয় অঞ্চলগুলোর বিভিন্ন গ্রাম প্লাবিত হয়েছে। ঘূর্ণিঝড়ে বাংলাদেশ পুরোপুরি ঝুঁকিমুক্ত বলে জানিয়েছে আবহাওয়া অধিদপ্তর। তবে এ থেকে সৃষ্ট জলোচ্ছ্বাসের প্রভাব বুধবার (২৬ মে) দিনভর থাকতে পারে বলে এক বিশেষ বুলেটিনে জানিয়েছে আবহাওয়া অধিদপ্তর।

আবহাওয়া অধিদপ্তর থেকে বলা হয়েছে, ওড়িশায় আঘাত হানার আগেই সকাল থেকে ঝড়ের প্রভাব পড়তে শুরু করেছে দেশের উপকূলে। প্লাবিত হয়েছে অনেক অঞ্চল। তবে এখন আর ইয়াসের সরাসরি কোনো প্রভাব দেশে নেই। জোয়ারের ফলে প্লাবিত অঞ্চলে আরও কিছু সময় পানি থাকবে।

আবহাওয়া অধিদপ্তরের আবহাওয়াবিদ শাহীনুল ইসলাম বলেন, ঝুঁকিমুক্ত একদিক দিয়ে আমরা, যেহেতু বাতাস তেমন আর হবে না। তবে জলোচ্ছ্বাসের প্রভাব থাকবে সারা দিন। এটা বিকাল নাগাদ থাকবে।

একে জোয়ার নাকি জলোচ্ছ্বাস বলতে হবে, তা জানতে চাইলে তিনি বলেন, সাগরে একটা নির্দিষ্ট সময় পরপর জোয়ার হয়। তবে ঝড়ের কারণে সেটা বেড়ে গিয়েছে।

দেশের আবহাওয়া অধিদপ্তরের সর্বশেষ পূর্বাভাসে বলা হয়, উত্তর-পশ্চিম বঙ্গোপসাগর ও তৎসংলগ্ন এলাকায় অবস্থানরত অতি প্রবল ঘূর্ণিঝড় ইয়াস আরও উত্তর, উত্তর-পশ্চিম দিকে অগ্রসর হয়ে বুধবার দুপুর ১২টা নাগাদ ধামড়ার উত্তর এবং বালাসোরের দক্ষিণ দিক দিয়ে ভারতের উত্তর ওড়িশা ও পশ্চিমবঙ্গ উপকূল অতিক্রম শুরু করেছে। এটি আরও উত্তর, উত্তর-পশ্চিম দিকে অগ্রসর হয়ে পরবর্তী তিন থেকে চার ঘণ্টার মধ্যে উপকূল অতিক্রম সম্পন্ন করতে পারে।

অতি প্রবল ঘূর্ণিঝড় অতিক্রমকালে খুলনা, সাতক্ষীরা, বাগেরহাট, ঝালকাঠি, পিরোজপুর, বরগুনা, পটুয়াখালী, বরিশাল, ভোলা, নোয়াখালী, লক্ষ্মীপুর, ফেনী, চাঁদপুর ও চট্টগ্রাম জেলা এবং এগুলোর কাছাকাছি দ্বীপ ও চরগুলোতে ভারী থেকে অতি ভারী বর্ষণ হতে পারে। ঘণ্টায় ৮০ থেকে ১০০ কিলোমিটার বেগে দমকা অথবা ঝড়ো হাওয়া বয়ে যেতে পারে।

অতি প্রবল ঘূর্ণিঝড় ও পূর্ণিমার প্রভাবে খুলনা, সাতক্ষীরা, বাগেরহাট, ঝালকাঠি, পিরোজপুর, বরগুনা, পটুয়াখালী, বরিশাল, ভোলা, নোয়াখালী, লক্ষ্মীপুর, ফেনী, চাঁদপুর ও চট্টগ্রাম জেলার নিম্নাঞ্চল স্বাভাবিক জোয়ারের চেয়ে তিন থেকে ৬ ফুট বেশি উচ্চতার জোয়ারে প্লাবিত হতে পারে।

প্রসঙ্গত, ভারতের স্থানীয় সময় বুধবার সকাল ৯টার কিছু পরই ওড়িশায় আছড়ে পড়তে থাকে ইয়াস। ওড়িশার উত্তরাঞ্চলীয় উপকূলে ইয়াসের আছড়ে পড়ার সময় বাতাসের সর্বোচ্চ গতিবেগ ছিল ঘণ্টায় ১৫৫ কিলোমিটার।

Please Share This Post in Your Social Media

error: Content is protected !!