January 29, 2022, 8:10 am

“চল যাই যুদ্ধে, ধর্ষকের বিরুদ্ধে” শ্লোগানে উত্তাল ঘোড়াশাল

সাব্বির হোসেন, নরসিংদী প্রতিনিধি : নোয়াখালী জেলার বেগমগঞ্জে বিবস্ত্র করে বর্বরোচিত নারী নির্যাতন এবং সাম্প্রতিক বিভিন্ন গণধর্ষণ ও নারী নির্যাতন-নিপীড়ণের প্রতিবাদে উত্তাল নরসিংদীর ঘোড়াশাল। আজ মঙ্গলবার (৬ অক্টোবর) সকাল থেকে বৃষ্টি ওপেক্ষা করে প্রধান প্রধান সড়কে ঘোড়াশালবাসীর ব্যানারে বিভিন্ন সামাজিক সংগঠন ও শিক্ষার্থীরা এ প্রতিবাদ মিছিলের আয়োজন করে।

এসময় “চল যাই যুদ্ধে, ধর্ষকের বিরুদ্ধে”, “ধর্ষকের লাগাম ধরো, মা-বোনকে রক্ষা কর”, “জেগেছে রে জেগেছে, ছাত্র সমাজ জেগেছে”, “আমার সোনার বাংলায়, ধর্ষকের ঠাঁই নাই” প্রভৃতি প্লেকার্ড নিয়ে বিভিন্ন স্কুল-কলেজের শিক্ষার্থী ও সাধারণ মানুষের শ্লোগানে উত্তাল হয়ে উঠে ঘোড়াশালের রাজপথ।

শেষে ঘোড়াশাল ফ্ল্যাগ রেলওয়ে স্টেশনে এক প্রতিবাদ সভায় বক্তব্য রাখেন সামাজিক সংগঠন স্মাইলের ফাউন্ডার ফারাবী রহমান আলিফ, স্টার ভিশন ট্রাভেল এজেন্সীর পরিচালক ইকরাম হোসেন, স্মাইল ডাংগা শাখার সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক পারভেজ আহাম্মেদ, দশম শ্রেণির ছাত্র রাহাদ ও সমাজ সেবক সফিকুল ইসলাম খান প্রমুখ।

এ সময় বক্তারা দেশব্যাপী চলমান ধর্ষণ, নারীর প্রতি সহিংসতায় জড়িতদের গ্রেফতার ও সর্বোচ্চ শাস্তি ফাঁসির দাবী জানান। দেশে চলমান ধর্ষণ, নির্যাতন ও নিপীড়ন বন্ধ না হলে সামনে বৃহৎ কর্মসূচির আওতায় কঠোর আন্দোলনে যাওয়ার ঘোষণা দেন। তারা আরও জানায়, ধর্ষণকারীদের বিরুদ্ধে ও অন্যায়ের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ করা সর্বোচ্চ ইবাদত।

স্বাধীনতার অর্ধশত বছরে এসেও আমার মা বোনেরা ধর্ষিত। ১৯৭১ সালের পাকিস্থানীদের আমরা ধর্ষক বলি, তাদের ধর্ষণকারী হিসেবে চিহ্নিত করি। যদি পাকিস্থানীরা ধর্ষণ করার কারণে তাদের বিরুদ্ধে আন্দোলন ও যুদ্ধ করতে পারি তাহলে আজও স্বাধীন বাংলাদেশে যারা ধর্ষণ করে তাদের বিরুদ্ধে সংগ্রাম আন্দোলন গড়ে তুলতে পারি।

Please Share This Post in Your Social Media

error: Content is protected !!