November 28, 2021, 9:23 am

News Headline :
কচুয়ায় নিরাপদ সড়কের দাবীতে মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সমাবেশ আওয়ামী লীগের দলীয় মনোনয়ন প্রত্যাশী আব্দুস সালাম সওদাগর আগামী ৫ জানুয়ারি ৫ম ধাপে অনুষ্ঠিত হচ্ছে কচুয়ার ইউপি নির্বাচন ফলোআপ: চারদিনে ও নিহত তিন শিক্ষার্থীর পরিবারকে শান্তনা দিতে পাশে দাঁড়ানি কেউ হাইমচর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সভাপতি মোতালেব জমাদার ১ম মৃত্যু বার্ষিকী পালিত হয়েছে। এম ই ফাউন্ডেশনের আয়োজনে নিউ বিজনেস ক্রিয়েশন প্রশিক্ষণ কর্মশালা শেষে সনদপত্র বিতরণ ভুয়া স্বাক্ষর ব্যবহার করে বিভিন্ন দফতরে মিথ্যা অভিযোগ, প্রতিবাদে মানববন্ধন সোনারগাঁয়ে ১০ কেজি গাঁজাসহ ০২ মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার, প্রাইভেটকার জব্দ। রাউজান দক্ষিন হিংগলা তৈয়্যবিয়া স্মৃতি সংসদের উদ্যোগে চালু হলো সাপ্তাহিক ফ্রি হোমিও চিকিৎসা ক্যাম্প আগামীকাল ফুলবাড়ী ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন,বিশৃঙ্খলা রোধে তৎপর প্রশাসন।

নওগাঁয় ক্লু-লেস মামলার রহস্য উদঘাটন

অন্তর আহম্মেদ নওগাঁ জেলা প্রতিনিধি: নওগাঁর রাণীনগরে একটি ক্লু-লেস হত্যা মামলার রহস্য উদঘাটন, বিজ্ঞ আদালতে দুই আসামির স্বেচ্ছায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দী প্রদান ও লাশ বহনকারী একটি পিকআপ জব্দ করেছে পুলিশ।

রোববার দুপুরে পুলিশ সুপার কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনে এসব তথ্য জানান পুলিশ সুপার প্রকৌশলী আবদুল মান্নান মিয়া বিপিএম।

সংবাদ সম্মেলনে পুলিশ সুপার জানান, গত১৯ এপ্রিল রাণীনগর উপজেলার মিরাট ইউনিয়নের ধনপাড়া গ্রামের একটি পুকুরে এলাকাবাসি প্লাষ্টিকের একটি ড্রামের ভিতর অজ্ঞাত এক ব্যক্তির লাশ দেখতে পায়। পরে পুলিশকে খবর দিলে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে লাশ উদ্ধার করে এবং লাশের সুরতহাল রিপোর্ট তৈরী করে ময়না তদন্তের জন্য সদর হাসপাতালে পাঠান।

পুলিশ সুপার আরো জানান, এ ঘটনায় গ্রাম পুলিশ আব্দুল আজিজ বাদি হয়ে রাণীনগর থানায় একটি মামলা দায়ের করলে সেই মামলার প্রেক্ষিতে পুলিশ গুরুত্বের সাথে তদন্ত শুরু করে। তদন্তের এক পর্যায়ে নিহতের পরিচয় পাওয়া যায়। নিহতের নাম শহীদুল ইসলাম। সে আত্রাই উপজেলার বাউল্যাপাড়া গ্রামের সেকেন্দার আলীর ছেলে। পরে নিহতের পরিবারের কাছ থেকে জানা যায়, শহীদুল ১লাখ ৪০ হাজার টাকা নিয়ে ট্রাক্টর কেনার জন্য নওগাঁ শহরে যায়। কিন্তু পরবর্তীতে তার সাথে পরিবারের আর কেউ যোগাযোগ করতে পারে নাই।

তিনি আরো জানান এই ঘটনায় জড়িত থাকার সন্দেহে পুলিশ আত্রাই উপজেলার বাজেধনেশ্বর গ্রামের মমতাজ সরদারের ছেলে আলম সরদার (৩৫) ও বাউল্যাপাড়া গ্রামের আনোয়ার হোসেনের ছেলে মামুনুর রশিদ ঋতু (২১) এবং মান্দা উপজেলার বড়পই গ্রামের ইয়াছিন দেওয়ানের ছেলে জুয়েল রানা ও বয়েন উদ্দিনের ছেলে বুলবুল হোসেন (৪৫) কে গ্রেফতার করা হয়। গ্রেফতারের পর তাদের আদালতে সোপর্দ করে ২দিনের রিমান্ডে এনে জিজ্ঞাসাবাদে হত্যাকান্ডের কিছু তথ্য পাওয়া যায়। সেই তথ্যর ভিত্তিতে হত্যাকান্ডে জড়িত থাকায় মান্দা উপজেলার দূর্গাপুর মধ্য পাড়ার আব্দুস সামাদের ছেলে সজিব (২৩) এবং দূর্গাপুর সোনারপাড়া গ্রামের বাহার আলীর ছেলে সোয়েল রানা (২৫) কে গ্রেফতার করা হয়। পরে তাদের জিঞ্জাসাবাদে শহীদুলকে একটি ভাড়া বাসায় হত্যা করে তার কাছে থাকা টাকা নিয়ে মান্দার সতীহাট থেকে একটি পিকআপে করে ড্রামের ভিতর ভরে লাশটি উক্ত স্থানে ফেলে রেখে চলে আসে। পরে শনিবার আসামীরা পুলিশের কাছে এবং আদালতে নিজেদের হত্যাকান্ডের জড়িত থাকার ১৬৪ ধারা স্বীকারোক্তি মূলক জবানবন্দি প্রদান করেন।

সংবাদ সম্মেলনে অতিরিক্ত পুলিশ একেএম মামুন চিশতী ও সদর সার্কেল আবু সাঈদ, রাণীনগর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা শাহিন আকন্দ, নওগাঁ সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোশারফ হোসেন জুয়েলসহ পুলিশের অন্যান্য কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।#

Please Share This Post in Your Social Media

error: Content is protected !!