January 22, 2022, 9:39 pm

News Headline :
যেখানে-সেখানে ময়লা-আবর্জনা না ফেলে নির্দিষ্ট স্থানে ফেলার অভ্যাস করি- চেয়ারম্যান প্রিয়তোষ চৌধুরী ইবিকে বাস উপহার দিলো অগ্রণী ব্যাংক করোনায় ১৭ জনের মৃত্যু, শনাক্তের হার ২৮.০২ মতলব উত্তরে নিশ্চিতপুর কল্যাণমূলক সংগঠনের শীতবস্ত্র বিতরণ ছেংগারচর পৌর আওয়ামী লীগের শীতার্তদের কম্বল বিতরণ ফরাজীকান্দি ইউপি’র চেয়ারম্যান ইঞ্জি. রেজাউল করিমের দায়িত্ব গ্রহন ও শোকরানা মিলাদ হাজীগঞ্জে দেয়াল চাপা পড়ে শ্রমিকের মৃত্যু চিলমারীতে স্বতন্ত্র প্রার্থী ও আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থীদের মাঠে-ঘাটে চলছে দৌড় ঝাপ। শেরপুরে যুব সংস্থার উদ্যোগে শীতবস্র ও খাতা-কলম বিতরণ সোনারগাঁয়ে ভয়ঙ্কর হয়ে উঠছে কিশোর গ্যাং কালচার

ফরিদগঞ্জে কোন মাদক ব্যবসায়ী ও সেবনকারীদের ছাড় দেওয়া হবে না- ওসি মোহাম্মদ শহীদ হোসেন

মোশারফ হোসেন ফারুক মৃধা ফরিদগঞ্জ প্রতিনিধিঃ

চাঁদপুরের ফরিদগঞ্জ উপজেলার গোবিন্দপুর উত্তর ইউনিয়নের ধানুয়া এলাকায় ফরিদগঞ্জ থানা পুলিশ মাদক বিরোধী অভিযান পরিচালনা সহ
ইউনিয়নের বিভিন্ন পাড়া মহল্লায় পুলিশের একটি  বিশাল  টীম মাদক, সন্ত্রাস, জঙ্গিবাদ, ইভটিজিং, নারী ও শিশু নির্যাতন, চুরি-ছিনতাই প্রতিরোধে সচেতনাতামূলক প্রচারনা করেন।

রবিবার (৮ নভেম্বর) বিকেলে ফরিদগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ মোহাম্মদ শহীদ হোসেনের নেতৃত্বে একাধিক পুলিশ অফিসার ও বিপুল সংখ্যক নারী ও পুরুষ পুলিশ সদস্যের অংশগ্রহনে প্রথমে অভিযানটি গোবিন্দপুর উত্তর ইউনিয়নের ধানুয়া  থেকে শুরু হয়ে পূর্ব ধানুয়ায় গিয়ে শেষ হয়।

ঐদিন পশ্চিম ধানুয়া গ্রামের মিজি বাড়ির বশির উল্ল্যা মিজির ছেলে মাদক ব্যবসায়ী রাছেল মিজি ও  মাসুদ মিজির বাড়িতে অভিযান পরিচালনা কালে পুলিশের ধাওয়ায় পাশের মাছের ঘেরে লাফিয়ে পড়ে পালিয়ে যায় তারা। এ সময় ইউনিয়নের বিভিন্ন স্থানে সচেতনতামূলক পথ সভা অনুষ্ঠিত হয়।

এলাকাবাসীর উদ্দেশ্যে ফরিদগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ মোহাম্মদ শহীদ হোসেন বলেন, ‘পুলিশ সুপার মহোদয়ের নির্দেশ সেই টেকনাফ থেকে মাদকের যতরকম হাত বদল হয়। ঐ চেইনের মধ্যে যাকে পাব,সে যেই হোক। তাকে ছাড় দেয়া হবে না।’
তিনি আরো বলেন, যারা মাদক ব্যবসার সাথে জড়িত তাদের ব্যাপারে সরকার ও রাষ্ট্র জিরোট্রলারেন্স ঘোষনা করেছেন। সুতরাং আমরা মাদকের সাথে সম্পৃক্তদের সর্বোচ্চ সর্তক করছি। ছেলে, স্বামী অথবা মেয়ে হোক, তাকে মাদক থেকে বিরত রাখতে হবে। তা না হলে কোন ছেলে মাদকের সাথে জড়িত থাকে, তার বাবা, মা, ভাই এবং বোনকে আইনের আওতায় নিয়ে যাব। আমরা চাই আপনাদের পরিবারের কোন সন্তান,আত্মীয়-স্বজন এবং এলাকাবাসী ক্ষতিগ্রস্ত না হয়।

অভিভাবকদের উদ্দেশ্যে ওসি বলেন, সন্ধ্যার পর ছেলে সন্তানদের পড়ার টেবিলে বসাতে হবে। তারা যেন এখানে-সেখানে আড্ডা না দেয় প্রত্যেক অভিভাবককে নৈতিক দায়িত্ব পালন করতে হবে।

বিভিন্ন  এলাকার অনেকে চুরি ও মাদকের সাথে জড়িত। চোরাই পন্য ক্রয়-বিক্রয় হচ্ছে। এসব বন্ধ করা না হলে চুরি,মাদক ,সন্ত্রাস ও ইভটিজিং এর সাথে জড়িত থাকলে তাদেরকে ধরে নিয়ে যাওয়া হবে। থানায় কেউ তদ্বির করতে যাবে না।
এসময় অভিযানকালে উপস্থিত ছিলেন, ওসি (তদন্ত) মো. বাহার মিয়া, প্রেসক্লাবের সভাপতি কামরুজ্জামান, এস. আই আব্দুল কুদ্দুছ, আব্দুর রাজ্জাকসহ অন্যান্য অফিসার ও পুলিশ সদস্যবৃন্দ।

Please Share This Post in Your Social Media

error: Content is protected !!