December 9, 2021, 9:32 am

News Headline :
আবারো অধিকার আদায়ে জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল ডিপ্লোমা প্রকৌশলী সমিতি নাটোরের বাগাতিপাড়ায় আন্তর্জাতিক দূর্নীতি বিরোধী দিবসে মানববন্ধন ও আলোচনা সভা। শেরপুরে আন্তর্জাতিক নারী নির্যাতন প্রতিরোধ পক্ষ ও বেগম রোকেয়া দিবস উদযাপন উপলক্ষে জয়িতাদের সংবর্ধনা হাতিয়ায় আন্তর্জাতিক দূর্নীতিবিরোধী দিবস ২০২১ পালিত টাঙ্গাইলের মধুপুরে বেগম রোকেয়া দিবস উদযাপন ফুলবাড়ী উপজেলা সমন্বয় কমিটির মাসিক সভা অনুষ্ঠিত। ফুলবাড়ীতে ভিটামিন এ’প্লাস ক্যাম্পেইন অবহিত করন সভা। আবারও নির্বাচিত হয়ে অসমাপ্ত কাজ সমাপ্ত করতে চান মজিবুল আলম সাদাত সোনারগাঁয়ে বিলুপ্তির পথে বেত ও বেত ফল নকলা মুক্ত দিবসের ৫০ বছর পূর্তি উপলক্ষে বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রা ও অলোচনা সভা

মঈন খান বকা দিয়েছিলেন ইউনিস খানকে

গ্রীন বাংলা খেলা ডেস্ক :   পাকিস্তানের ক্রিকেট ইতিহাসে অন্যতম সেরা ব্যাটসম্যান ইউনিস খান। তাঁর নাম উচ্চারিত হয় জহির আব্বাস, জাভেদ মিয়াঁদাদ, ইনজামাম-উল-হকদের সঙ্গে। কোনো কোনো ক্ষেত্রে তো ইউনিস ছাপিয়ে গেছেন এসব কিংবদন্তিদের। আন্তর্জাতিক ক্যারিয়ারে দেশের হয়ে ১৭ হাজার রান করেছেন, যা পাকিস্তানি ব্যাটসম্যানদের মধ্যে সর্বোচ্চ। কিন্তু এমন একজন ক্রিকেটারেরও আন্তর্জাতিক ক্যারিয়ারের শুরুটা খুব একটা ভালো হয়নি।

 

টানা ব্যর্থতার সেই দিনগুলো এত বছর পর তাঁকে আজও তাড়া করে। ওই সময় যে মানসিক চাপ তাঁকে সইতে হয়েছে, সেটি মনে করে আজও শিউরে ওঠেন তিনি। ২০০০ সালের শুরুর দিকে ইউনিস যখন পাকিস্তানের হয়ে খেলা শুরু করেন, তখন পাকিস্তানকে নেতৃত্ব দিচ্ছেন উইকেটকিপার মঈন খান। তখন মঈনের একটি আচরণ তাঁকে আজও পোড়ায়। একটি ম্যাচে ব্যাটিং ব্যর্থতার পর মঈন খানের বকাঝকা তাঁকে কষ্ট দিয়েছিল।

 

টানা ব্যর্থতার সেই দিনগুলো এত বছর পর তাঁকে আজও তাড়া করে। ওই সময় যে মানসিক চাপ তাঁকে সইতে হয়েছে, সেটি মনে করে আজও শিউরে ওঠেন তিনি। ২০০০ সালের শুরুর দিকে ইউনিস যখন পাকিস্তানের হয়ে খেলা শুরু করেন, তখন পাকিস্তানকে নেতৃত্ব দিচ্ছেন উইকেটকিপার মঈন খান। তখন মঈনের একটি আচরণ তাঁকে আজও পোড়ায়। একটি ম্যাচে ব্যাটিং ব্যর্থতার পর মঈন খানের বকাঝকা তাঁকে কষ্ট দিয়েছিল।

 

তবে মঈন খানের সেই ‘বকা’র ভালো দিক দেখেন ইউনিস। অধিনায়কের সেই তিরস্কার তাঁকে পরবর্তী সময়ে দলের অন্যতম স্তম্ভ হয়ে উঠতে সাহায্য করেছে বলেই মনে করেন পাকিস্তানকে ২০০৯ সালে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ জেতানো অধিনায়ক, ‘আমি মঈন ভাইকে ধন্যবাদই জানাই। ওই তিরস্কার আমাকে আরও মনোযোগী হতে, নিজেকে আরও ভালোভাবে গড়ে তুলতে সহায়তা করেছে। আমি ভুলগুলো থেকে শিখেছি।’

 

তবে মঈন খানের সেই ‘বকা’র ভালো দিক দেখেন ইউনিস। অধিনায়কের সেই তিরস্কার তাঁকে পরবর্তী সময়ে দলের অন্যতম স্তম্ভ হয়ে উঠতে সাহায্য করেছে বলেই মনে করেন পাকিস্তানকে ২০০৯ সালে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ জেতানো অধিনায়ক, ‘আমি মঈন ভাইকে ধন্যবাদই জানাই। ওই তিরস্কার আমাকে আরও মনোযোগী হতে, নিজেকে আরও ভালোভাবে গড়ে তুলতে সহায়তা করেছে। আমি ভুলগুলো থেকে শিখেছি।’

 

 

 

Please Share This Post in Your Social Media

error: Content is protected !!