June 24, 2021, 5:41 am

সম্পত্তি জোরপূর্বক আদায় করতে চাঁদপুরে চেয়ারম্যান মান্নান মালের মেয়ে গর্ভধারিনী মায়ের উপর হামলা

 

মোঃ হোসেন গাজী।।

চাঁদপুর সদর উপজেলার ৩ নং কল্যাণপুর ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান আব্দুল মান্নান মালের মেয়ে তার আপন গর্ভধারিণী মায়ের উপর হামলা করেছে বলে অভিযোগ উঠেছে।
মায়ের সম্পত্তি জোরপূর্বক লিখে নেওয়ার জন্য মেয়ে মাকসুদা বেগম সুখী হামলা চালিয়ে আহত করেছে। সম্পত্তি নেওয়ার জন্য চাপ প্রয়োগ ও ভয়-ভীতি প্রদর্শন করেছে।
শনিবার বিকেলে চাঁদপুর পৌরসভার ১৪ নং ওয়ার্ড মান্নান মালের দ্বিতীয় স্ত্রী মমতাজ বেগমের উপর এই হামলার ঘটনা ঘটে।
জানা যায়, সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুল মান্নান মাল দুটি বিয়ে করেছেন। তিনি তার দ্বিতীয় স্ত্রী মমতাজ বেগমের নামে ৭৫ শতাংশ জায়গায় রেজিস্ট্রি করে দেন।
মান্নান মালের শারীরিক অবস্থা অবনতি দেখে তার দ্বিতীয় স্ত্রী মমতাজ বেগমের গর্ভধারিণী মেয়ে মাকসুদা বেগম সুখী সম্পত্তির লোভে পরে যায়।
মেয়ে মাসুদা বেগম সুখির স্বামী দুই সন্তান রেখে মারা যাওয়ার পর শ্বশুরবাড়িতে অন্যায়-অপরাধ করলে তাকে সেই বাড়ি থেকে নামিয়ে দেয়।
পরে শশুর বাড়িতে আশ্রয় না পেয়ে বাবা মান্নান মালের বাড়িতে এসে অবস্থান নেয়। বাবার বাড়িতে আসার পরে তার আপন গর্ভধারিণী মায়ের উপর অত্যাচার নির্যাতন শুরু করে। অবশেষে মান্নান মালের দেওয়া ৭৫ শতাংশ সম্পত্তির উপর লোভ পরে মেয়ের।
সেই জায়গা লিখে না দেওয়ায় শনিবার মায়ের উপর হামলা চালায়।
এই ঘটনায় হামলার শিকার হওয়া মান্নান মালের দ্বিতীয় স্ত্রী মমতাজ বেগম জানায়, সম্পত্তির লোভে পড়ে মেয়ে অতর্কিতভাবে এসে হামলা চালিয়েছে।
সম্পত্তিগত বিষয় নিয়ে মেয়ের সাথে বাকবিতন্ডা ও হাতাহাতির ঘটনা ঘটে। এই হামলার ঘটনায় তাৎক্ষণিক স্বামী মান্নান মালকে ও প্রথম স্ত্রী আয়েশা বেগমকে জানানো হয়েছে। যেহেতু পারিবারিক বিষয় সেহেতু নিজের এই সমস্যার সমাধান করব।
এদিকে স্থানীয়রা অভিযোগ করে বলেন, কিছুদিন পরপরই সাবেক চেয়ারম্যান মান্নান মালের দ্বিতীয় স্ত্রীর পরিবারের সদস্যদের সাথে সম্পত্তিগত বিষয় নিয়ে বাক বিতন্ডা ঝগড়া বিবাদের ঘটে আসছে।
মান্নান মালের মেয়ে মাসুদা বেগম সুখী আচার-আচরণ খুবই খারাপ। সে সম্পত্তি জোরপূর্বক ভোগ দখল করার জন্য তার আপন বাবা ও মায়ের সাথে দুর্ব্যবহার করছে। স্বামীর বাড়িতে ঠাঁই না পেয়ে বাবার বাড়িতে এসে কিছুদিন পর পর এই হামলার ঘটনা ঘটাচ্ছে।
কিছু দিন পূর্বে মান্নান মালের প্রথম স্ত্রী আয়েশা বেগমের বাড়ীতে এসে তাকে হামলা চালিয়ে আহত করেছে।
যে গর্ভধারিনী মাকে মারধর করে আহত করেছে সে মানুষ নয় অমানুষ, আমরা প্রতিবেশী হিসেবে সেই মেয়ের বিচার দাবি করছি।

Please Share This Post in Your Social Media

error: Content is protected !!