চাঁদপুরে মহান মে দিবসের র‌্যালি ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত

মহান মে দিবস উপলক্ষে চাঁদপুর জেলা প্রশাসন ও শ্রম কল্যাণ কেন্দ্রের যৌথ আয়োজনে যথাযথ ভাবে র‌্যালি ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

এ বছরের মহান মে দিবসের প্রতিপাদ্য- ‘শ্রমিক-মালিক ঐক্য গড়ি, স্মার্ট বাংলাদেশ গড়ে তুলি’।

দিবসটি উপলক্ষে চাঁদপুর জেলা প্রশাসন ও শ্রম কল্যাণ কেন্দ্রের যৌথ আয়োজনে ১ মে সোমবার সকাল ১০ টায় চাঁদপুর শহরের বাস স্ট্যাণ্ড এলাকা থেকে বর্ণাঢ্য র‌্যালি বের করা হয়। র‌্যালির উদ্বোধন করবেন অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) ইমতিয়াজ হোসেন। র‌্যালিতে উপস্থিত ছিলেন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সদর সার্কের আসিফ মহিউদ্দিনসহ শ্রমিক নেতৃবিন্দ। র‌্যালিটি শহরের গুরুত্বপূর্ণ সড়ক প্রদক্ষিণ করে জেলা প্রশাসক কার্যালয়ে গিয়ে শেষ হয়। পরে জেলা প্রশাসক কার্যালয়ের সম্মেলন কক্ষে দিবসটির তাৎপর্য নিয়ে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।
বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন পুলিশ সুপার মোঃ মিলন মাহমুদ বিপিএম (বার),উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সানজিদা শাহনাজ। স্বাগত বক্তব্য রাখেন
শ্রম কল্যাণ সংগঠক মোঃ হযরত আলী।

নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট নিগার সুলতানার সঞ্চালনায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে জেলা প্রশাসক কামরুল হাসান বলেন, আপনারা যারা যে সব সমস্যার কথা বলেছেন তা সমাধান করা সম্ভব।চাষ করা মাছ যদি বাজারে না থাকতো সাধারন মানুষ না খেয়ে থাকতে হবে। আমাদের বিবেকের বিষয়। চার মাস আগে আইন শৃঙ্খলার সভায় সিদ্ধান্ত হয়েছে যত্রতত্র যানবাহ থামানো যাবে না, সিএনজি ও ইজি বাইকের ডান পাশ বন্ধ করতে নির্দেশ দেয়া হয়েছে। আজকে আমরা মে দিবস পালন করছি “শ্রমিক-মালিক ঐক্য গড়ি, স্মার্ট বাংলাদেশ গড়ে তুলি”। শ্রমিক-মালিকের সমন্নয়ে আমরা প্রশিক্ষনের ব্যবস্হা করবো।তিনি আরো বলেন, আমার মনে হয় আজকে মে দিবসের আলোচনা করছি না, সিএনজি ইজি বাইকে দাবি আদায়ের আলোচনা করছি। আমাদের সব দিক নিয়ে আলোচনা করতে হবে। ১৮৮৬ সালের আমেরিকার শিকাগো শহরের হে মার্কেটের সামনে শ্রমিকরা ৮ ঘণ্টা কাজের দাবিতে আনন্দোলন করে ছিল শ্রমিকরা। এটি হলো শ্রমিকদের দাবি আদায়ের দিবস। বিয়ের জন্য একটা বয়স নির্ধারন করে দেয়া আছে। তেমনি গাড়ি চালানোর জন্য চালকের ও বয়স নির্ধারন করা আছে। অপ্রাপ্ত বয়স্ক ব্যাক্তিকে গাড়ি চালানো থেকে বিরত রাখতে হবে।

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে পুলিশ সুপার বলেন, অনেক শ্রমিক এখনো বেতন ভাতা পাচ্ছে না। যারা মেহনতি মানুষ তাদের পরিশ্রমের টাকায় আমাদের বেতন হয়। আমাদের দেশ এখন উন্নতশীল দেশের দিকে যাচ্ছে। তা সম্ভব হচ্ছে আপনাদের শ্রমের কারণে। গত কিছুদিন পূর্বে লঞ্চ মালিক শ্রমিকদের সমঝোতা করা হয়েছে। রাস্তায় চলতে গেলে আমদের গাড়ি চালানোর প্রশিক্ষন দেওয়া চমৎকার সিদ্ধান্ত। চাঁদপুর জেলায় যদি ১৬ হাজার সিএনজি চলাচল করে সড়কে শৃঙ্খলা ফিরিয়ে আনতে ১৬ টি গাড়ি ধরে নিলে সমস্যা কোথায়। আপনাদের গাড়ি ধরাতো আমাদের দায়িত্ব না। সড়কে শৃঙ্খলা আনা আমাদের দায়িত্ব।
স্বাগত বক্তব্য রাখেন শ্রম কল্যাণ সংগঠক মোঃ হযরত আলী।
অন্যান্য বক্তারা বলেন, ১৮৮৬ সালের এ দিনে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের শিকাগো শহরের হে মার্কেটের সামনে শ্রমিকরা ৮ ঘণ্টা কাজের দাবিতে জীবন উৎসর্গ করেছিলেন।সেদিন অনেক শ্রমিক কে আটক করা হয়। তাদের মধ্য থেকে ৬ জনকে ফাঁসিতে ঝুলিয়ে হত্যা করা হয়। ওইদিন তাদের আত্মদানের মধ্যদিয়ে শ্রমিক শ্রেণির অধিকার প্রতিষ্ঠিত হয়েছিল। শ্রমজীবী মানুষের অধিকার আদায়ের জন্য শ্রমিকদের আত্মত্যাগের এ দিনকে তখন থেকেই সারা বিশ্বে ‘মে দিবস’ হিসেবে পালন করা হচ্ছে। মহান স্বাধীনতার পর জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ১৯৭৩ সালে ‘মহান দিবস’কে ‘জাতীয় শ্রমিক দিবস’ এবং ‘সরকারি ছুটি’ ঘোষণা করে শ্রমজীবী মানুষের স্বার্থ ও মর্যাদা সুনিশ্চিত করে।শ্রমিক মালিক ঐক্য থাকলে যে কোনো কাজ সহজে করা যায়।
এ সময় আরো বক্তব্য রাখেন,জেলা বাংলাদেশ -নৌ- যান শ্রমিকলীগের সভাপতি মোহাম্মদ বিল্পব সরকার, চাঁদপুর জেলা সড়ক পরিবহন শ্রমিক ইউনিয়নের সভাপতি বাবুল মিজি, জেলা সিএনজি চালিত অটোরিক্সা মালিক সমিতির সভাপতি আবুল হোসেন, রেলওয়ে হকার্স মার্কেট ব্যবসায়ী সমিতি সাধারন সম্পাদক হাফেজ জাকির হোসেন, জেলা সিএনজি শ্রমিক ইউনিয়নের সভাপতি কাজী ওমর ফারুক, ট্রাক ও ট্যান্ক লড়ি শ্রমিক ইউনিয়নের সাধারন সম্পাদক আবুল কালাম মন্টু,সিএনজি শ্রমিক ইউনিয়নের কামাল হোসেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

আজকের দিন-তারিখ
  • রবিবার (সকাল ৯:৫৬)
  • ১৪ই জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ
  • ৮ই মহর্‌রম, ১৪৪৬ হিজরি
  • ৩০শে আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ (বর্ষাকাল)
পুরানো সংবাদ
সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
১০১১১২১৩১৪
১৫১৬১৭১৮১৯২০২১
২২২৩২৪২৫২৬২৭২৮
২৯৩০৩১