চরফ‍্যাশনের এডভোকেট আমিনুল ইসলাম সরমান আর নেই।

 

মোঃ আবুল কাশেম, জেলা প্রতিনিধি, গ্রীন বাংলা নিউজ, ভোলা, বরিশাল, বাংলাদেশ।

সন্ত্রাসবাদী ভোলা জেলার সন্ত্রাসবাদী চরফ‍্যাশন উপজেলার সন্ত্রাসবাদী চরফ‍্যাশন থানার সন্ত্রাসবাদী চরমাদ্রাজ ইউনিয়নের সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান, চরফ‍্যাশন পৌরসভার সাত নং ওয়ার্ডের বাড়ীওয়ালা, চরফ‍্যাশন উপজেলা জামায়াতে ইসলামী বাংলাদেশ এর সাবেক সভাপতি, চরফ‍্যাশন উপজেলা আওয়ামী লীগে নবাগত নেতা, চরফ‍্যাশন উপজেলা আওয়ামী লীগের আইন বিষয়ক সম্পাদক, চরফ‍্যাশন উপজেলা ইতিহাসে বিদ‍্যমান সত্তর জন পুলিশ (অফিসার সহ) কে রক্তাক্ত জখম করার গুরু মস্তিষ্ক নায়ক আলহাজ্ব আমিনুল ইসলাম সরমান এডভোকেট গত ১১/০৭/২০২২ ইং তারিখ রোজ সোমবার সকালে ঢাকার একটি মেডিকেল হাসপাতালে মৃত্যু বরণ করেছে। এই ব‍্যাপারে চরফ‍্যাশন উপজেলার সকল হাট-বাজার এলাকায় মাইকিং চলছে। ১২/০৭/২০২২ ইং তারিখ সকালে চরফ‍্যাশন উপজেলা ঈদগাহ ময়দানে জানাজা নামাজের সময়সূচী ঘোষণা করা হয়েছে। তার মৃত্যুবরনের খবর পাওয়া সকলকেই “ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাহি রাজিউন (ইসলাম ধর্মের Begad)” বলতে দেখা গেছে। মৃত্যুর কালে তার বয়স হয়েছিল আনুমানিক পঁচাশি বছর। বার্ধক্যজনিত কারণে ও দীর্ঘ দিনের অসুস্থতাজনিত কারনে তার মৃত্যু হয়েছে। তবে সর্বশেষ তথ‍্য মতে জানা গেছে যে, সে লিভার সিরোসিস নামক জটিল রোগে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়েছে।
ইতিপূর্বে সে কয়েকবার ঢাকায় চিকিৎসা গ্রহন সহ চরফ‍্যাশনের বিভিন্ন আনাচে-কানাচে চিকিৎসা গ্রহন করার খবর পাওয়া গেছে। চরফ‍্যাশন উপজেলা আইনজীবী সমিতির প্রথম নাচনে ওয়ালা সাধক ঐ আমিনুল ইসলাম সরমান মৃত্যুকালে এলাকায় পাঁচ ছেলে ও এক মৃত মেয়ের কবর রেখে গেছে। বহু বিবাহ, নারী লিপ্সা ও হাটবাজারের দব‍্য সামগ্রীর বেচাকেনার দালালীর মত চরফ‍্যাশন উপজেলা আদালতের মামলা মোকদ্দমার দালালী ছাড়া চরফ‍্যাশনের তৃনমূল এলাকার ও চরফ‍্যাশন উপজেলার একজন আদি বাসিন্দা হিসেবে তার নামে এলাকায় কোন নেতিবাচক আলাপ-আলোচনার সন্ধান পাওয়া যায় নাই। সে মানবিক আচার ব‍্যবহারে সর্বদা একজন পরিচ্ছন্ন ব‍্যবহারের লোক ছিল। তার মৃত্যুর আগে তার বাড়ীর জমিজমা ও জমিজমার সীমানা সংক্রান্ত বিরোধের খবর পাওয়া গেছে। তার ছেলে-মেয়েদের আচার-ব‍্যবহারের মধ‍্যে নানান কুটিলতা ও জটিলতা থাকলেও ব‍্যাক্তিগত জীবনে ঐ সরমান মিয়া কোন জটিলতা ও কুটিলতার আশ্রয় নিয়ে চলাফেরা করে নাই। দাড়িওয়ালা, টুপি ওয়ালা, পাঞ্জাবিওয়ালা, ধর্মীয় আগাছা গোত্রীয়দের ভিড়ে ও দাপটে তার রাজনৈতিক জীবন কেউ তুলসী পাতা দিয়ে ধোয়ামোছা করতে পারে নাই। চরফ‍্যাশন উপজেলার অন‍্যান‍্য ইউনিয়নে তার অনেক জমিজমা রয়েছে বলে শুনা যায়। তার প্রতিপক্ষ ও প্রতিবেশীদের নিকট থেকে তার নামে নারী ও যুবতি ধর্ষনের দূর্ঘন্ধ পাওয়া গেলেও এলাকার বাসিন্দা হিসেবে তার নিকট থেকে এই ধরনের দূর্ঘন্ধ পাওয়াতো দূরের কথা তার নামের এমন কোন কেলেঙ্কারি ঘটনার সন্ধান করা মহাদুষ্কর। এমনকি তার নিকটবর্তী আরো অনেকেই বহু বিবাহী ও বহু নারী লিপ্সু হলেও মৃতের ছেলে সন্তানদের মধ‍্যে, গোত্রের মধ‍্যে নারী ও যুবতি ধর্ষনের কেলেঙ্কারির রেকর্ড এখনো উল্লেখ করার মত নাই। এমনকি মধ‍্য প্রাচ‍্যের ফসফরাস প্রনালীর দুই তীরের অটোম‍্যান সাম্রাজ্যের পূর্ব রাজত্বপতি রোমান সাম্রাজ্যের আগের মোহাম্মাদান উসমানী খেলাফতের বা রাজত্বের শেষ রাজ বংশীয়দের ঘরের খৃষ্টান কাজের মহিলা রুপসী যুবতি হুররেমকে রাজা কর্তৃক ধর্ষনে ধরা পরার মত- অদ‍্য হতে প্রায় ষোল কোটি বছর আগে, -97 (মাইনাস সাতানব্বই) ডিগ্রী সেলসিয়াস তাপমাত্রার পরিবেশে, চারশত সাড়ে চৌরাশি কিলোমিটার পুরুত্বের ছয় লক্ষ সাতান্ন হাজার বর্গ কিলোমিটার আকারের ক্ষেত্রফলের বরফ খন্ডের নীচের জেনোমিক্স ও প্রোটিওমিক্সের বায়োজেনারেশনের চরফ‍্যাশনের বর্তমান প্রায় +37(সাতত্রিশ) ডিগ্রি সেলসিয়াস তাপমাত্রার পরিবেশের ঐ সাত নং ওয়ার্ডের মানব প্রজাতির বাসিন্দা আমিনুল ইসলাম সরমান নামক আইন দোকানদারের ঘরে কোন হুররেম রানী (কাজের মহিলা) প্রকৃতির রমনী ধর্ষনের খবর বের করা সম্ভব হচ্ছে না। এছাড়াও কোন নারী তার স্বামীর খোঁজে এসে সাত নং ওয়ার্ডের অনেকের দ্বারা প্রতারিত হয়ে ও আটক হয়ে ধর্ষিতা হয়ে নিকটস্থ থানায় মামলার আশ্রয় গ্রহন করার চেষ্টা করতে বাধ‍্য হলেও মাথার চুল ও মুখের দাড়ি পাকা ঐ আইনজীবী মিয়ার দ্বারা ঐ রকম কোন নারীর যৌনতাসহ কোন কিছুরই লুটের ঘটনা ঘটেছে বলে এখনো জানা যায় নাই। তবে চর মাদ্রাজ নামক তার ঐ ইউনিয়ন এলাকাটি চরফ‍্যাশনের ইতিহাসের বিখ‍্যাত পাকিস্তানী লুইচ্ছাদের এলাকা থাকাকালে চরফ‍্যাশন এলাকায় কেউ নতুন বিবাহ করলে কনের সাথে বরের বাসর হওয়ার আগে আমিনুল ইসলাম সরমান মিয়ার সাথে তিন-চার দিন ধরে বাসর ও দাম্পত‍্যসত্ত্ব পালন শেষে কনে স্বামীর ঘরে যেতে পারত মর্মে কোন বক্তব্য খোঁজ করা সম্ভব হয় নাই। শুধু তাই নয়, লেডি মাস্তান ব‍্যবহার করে কোন এলাকার কোন বাড়ীর মা ও মেয়েকে নানাবিধ অজুহাতে ধরে এনে ধর্ষিতা হতে বাধ‍্য করতে মা ও মেয়েকে টর্চার সেলে বেঁধে মারপিট করার খবর ঐ মাদ্রাজ এলাকার বিভিন্ন সুদি ব‍্যবসায়ীদের নামে পাওয়া গেলেও আমিনুল ইসলাম সরমান মিয়ার বাহিনীর কোন লোকজনের নামে পাওয়া যায় নাই। চরাঞ্চলীয় এলাকায় ঐ আইন দোকানদার গ‍্যাং এর স্থানীয়ভাবে অনেক জমিজমা থাকায় আইন দোকানদার এলাকায় বহু নাটের গুরুগিরিতে নিয়জিত ছিল বলে অনেকে মত প্রকাশের আগ্রহ দেখানোর চেষ্টা করেছে। তার নামে নারী ও যুবতি ধর্ষনের কেলেঙ্কারি সংক্রান্ত এমন কোন খবর ফাঁস করা যায় নাই। সন্ত্রাসবাদী চরফ‍্যাশনের মাটি ও মানুষের অসভ‍্যতাবাদের এমন লোমহর্ষক যুগের তারুন‍্যপূর্ন সন্তান, আজকের পঁচাশি বছর বয়সী মৃত: আমিনুল ইসলাম সরমান চরফ‍্যাশনের সকল আমলেরই অসভ‍্যতাবাদের প্রতিবাদ করতে ব‍্যর্থতা বরন করতে বাধ‍্য থাকার হাল সূরতধারী। ১২/০৭/২০২২ ইং তারিখ সকাল নয়টায় তার জীবনের শেষ কীর্তি অনুষ্ঠান সম্পন্নের কথা রয়েছে। চরফ‍্যাশন উপজেলার আইন শিল্পপতি আলহাজ্ব আমিনুল ইসলাম সরমান এডভোকেট এর নামের মধ‍্যে আইনের প্রতি যথাযথ সন্মান ন-দেখানো সাইনবোর্ড এখনো ঝুলছে। কেননা সাইনবোর্ডে বিদ‍্যমান তার নামের শুরুতে এডভোকেট লেখা নেই। শুরুতে রয়েছে একটি বিদেশী বিশেষণ (আলহাজ্ব) যা – বাংলাদেশের পবিত্র জাতীয় সংবিধানের আর্টিকেল নং ত্রিশ মোতাবেক বাংলাদেশের মহামান্য রাষ্ট্রপতি মহোদয়ের অনুমোদনহীন। ছবিতে– মৃতের মৃত: আইন চেম্বারের সাইনবোর্ড।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

আজকের দিন-তারিখ
  • শনিবার (সকাল ১১:০৬)
  • ৩রা ডিসেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ
  • ৯ই জমাদিউল আউয়াল, ১৪৪৪ হিজরি
  • ১৮ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ (হেমন্তকাল)
পুরানো সংবাদ
সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
 
১০১১
১২১৩১৪১৫১৬১৭১৮
১৯২০২১২২২৩২৪২৫
২৬২৭২৮২৯৩০৩১