হাইমচরে বিশুদ্ধ পানি শূন্যতায় অর্ধশত পরিবারের ভোগান্তি

 

মোঃ হোসেন গাজী।।

হাইমচর উপজেলার ১নং গাজীপুর ইউনিয়নের বেইলি গুচ্ছ গ্রামের প্রায় অধর্শত পরিবার বিশুদ্ধ পানি শূন্যতায় ভুগছেন। বিশুদ্ধ খাবার পানির অভাবে মানবেতর জীবন যাপন করছেন এই পরিবার গুলো। বেইলি গুচ্ছ গ্রামে বিশুদ্ধ পানির টিউবওয়েল না থাকায় সঠিক সময়ে খাবার খেতে পারছেনা। ফলে ঐসমস্থ পরিবার গুলো অসুস্থ হয়ে পড়ছেন। স্থানীয় এলাকাবাসী ভুক্তভোগীরা দ্রুত গুচ্ছ গ্রামে একটি গভীর নলকূপ স্থাপন করার জন্য প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করছেন।

২০ নভেম্বর সরজমিনে গিয়ে দেখা যায়, গাজীপুর ইউনিয়নের বেইলি গুচ্ছ গ্রামে শতটি বসত ঘর থাকলেও অর্ধশত পরিবার বসবাস করছেন এই গুচ্ছ গ্রামে। এই পরিবার গুলো জন্য নেই কোনো বিশুদ্ধ পানির ব্যবস্থা এমনকি আলোঁর ব্যবস্থাও নেই। তারা যেনো এক মরুভূমির মধ্যে বসবাস করছেন। চারপাশে নদী মাঝখাঁনে যেগে উঠা চর যেনো একটি দীপ।

এই চরটিতে সরকার বসতভিটাহীন পরিবারে জন্য তৈরি করেন গুচ্ছ গ্রাম এর নাম রাখা হয় বেইলি গুচ্ছ গ্রাম। এই গ্রামে প্রতিটি ঘরের সাথে একটি রান্না ঘর, টয়লেট ও অগভীর টিউবওয়েল স্থাপন করেন। এই টিউবওয়েলর পানি পান করে ডায়রিয়াজনিত রোগসহ নানারকম রোগে আক্রান্ত হচ্ছে শিশু থেকে বৃদ্ধ সকল শ্রেনীর মানুষ।

বেশ কয়েকবছর ধরে এই চর অঞ্চলের মানুষ বিশুদ্ধ পানির জন্য নদী পাড় হয়ে কাটাখালী সকাল বিকাল এসে পানি নিয়ে পরিবারের লোকজনের তৃষ্ণা মেটান। বিশুদ্ধ পানির জন্য একটি কল চেয়ে গাজীপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ও উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যানের নিকট আকুতি মিনতি করেও পায়নি কোনো কলের সন্ধ্যান।

স্থানীয় বৃদ্ধা লতুফা বেগম জানান, আমরা এই বেইলি গুচ্ছ গ্রামের লোকজন বিশুদ্ধ পানি ও আলো বিহীন মরুভূমিতে বসবাস করছি। আমরা এই গুচ্ছ গ্রাম হওয়ার পর থেকে দৈনিক ৪০টাকা ট্রলার ভাড়া দিয়ে নদীর ঐ পাড়ে গিয়ে পানি নিয়ে আসতে হয়। পানি নিয়ে না আশা পর্যন্ত পরিবারে লোকজন বিশেষ করে শিশুরা পানির তৃষ্ণায় কাতর হয়ে থাকেন।

চানবানু বেগম জানান, কে দেখে আমাদের এই দূর্দশা নির্বাচন আসলেই যত প্রতিশ্রুতি সেই অনুযায়ী যদি কাজ করতো তাহলে এই চরে একটি হলেও বিশুদ্ধ পানির কলের ব্যবস্থা করতো। পানির অভাবে আমরা যেই কষ্ট পাচ্ছি তা শুধু উপরওয়ালাই বুঝে। কারণ আমরা স্থানীয় মেম্বার চেয়ারম্যান কে জানানো সত্যেও তারা এই পর্যন্ত কোনো ব্যবস্থা নেয়নি।

মোঃ আবুল কাশেম, মোঃ শাহজাহানসহ স্থানীয় কয়েকজন জানান, নির্বাচন আসলেই চেয়ারম্যান মেম্বাররা চোখের পানি ফেলে ভোট ভিক্ষা করে জনপ্রতিনিধি হন। আর এখন আমরা কাঁদি কিন্তু সেই জনপ্রতিনিধিদের চোঁখে জল আসেনা কারন পানির তৃষ্ণায় আমরা কষ্ট পাই তারা পায়না। আমাদের মাথা বিক্রি করে তারা অর্থ উপার্যন করে টাকার মালিক হচ্ছেন। এতোবার চেয়ারম্যান, মেম্বার কে বলা সত্যেও একটি কলও আসে না, এর চাইতে লজ্জা জনক বিষয় আর কি হতে পারে।

স্থানীয় ইউপি সদস্য দেলোয়ার গাজী জানান, আমার চর অঞ্চলবাসী বিশুদ্ধ পানির অভাবে মানবেতর জীবনযাপন করছেন। আমি ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ও উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যানকে বিষয়টি সম্পর্কে অবগত করেছি। এখন পর্যন্ত কোন বিশুদ্ধ পানির কল এই চরাঞ্চলে স্থাপন হয়নি। আমার এলাকাবাসীর স্বার্থে কষ্ট লাঘবের জন্য অচিরে একটি গভীর নলকূপ স্থাপন করার জন্য সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের কাছে অনুরোধ করছি।

ইউপি চেয়ারম্যান মোঃ হাবিবুর রহমান গাজী জানান, চরাঞ্চলের মানুষ বিশুদ্ধ পানির অভাবে ভুগছেন এই বিষয়টি আমাকে ইতিপূর্বে কেউ জানায়নি। আমি এখন জানতে পেরেছি, উপজেলা মাসিক সমন্বয় সভায় বেলি গুচ্ছগ্রামের জন্য কয়েকটি গভীর নলকূপের জন্য আবেদন করেছি। আশাকরি এই চর অঞ্চলের মানুষের কষ্ট লাগবে অতিদ্রুত বিশুদ্ধ পানির কল স্থাপন করতে পারবো। তাদের কষ্ট লাগবে আমি আমার চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছি।

উপজেলা জনস্বাস্থ্য সহকারী প্রকৌশলী নূর হোসেন জানান, গাজীপুর ইউনিয়নের বেলি গুচ্ছ গ্রামের জন্য দুইটি গভীর নলকূপের প্রস্তাবনা রেখেছি। আশাকরি খুব দ্রুত গুচ্ছ গ্রামের এই পানির সমস্যা সমাধান হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

আজকের দিন-তারিখ
  • মঙ্গলবার (রাত ৮:৪৫)
  • ৬ই ডিসেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ
  • ১২ই জমাদিউল আউয়াল, ১৪৪৪ হিজরি
  • ২১শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ (হেমন্তকাল)
পুরানো সংবাদ
সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
 
১০১১
১২১৩১৪১৫১৬১৭১৮
১৯২০২১২২২৩২৪২৫
২৬২৭২৮২৯৩০৩১