রাউজানে তরমুজের বাম্পার ফলন-কোটি টাকা আয়ের স্বপ্ন চার কৃষকের

 

শাহাদাত হোসেন, রাউজান (চট্টগ্রাম):

লতাপাতার ফাঁকে ফাঁকে লুকিয়ে রয়েছে হাজার হাজার তরমুজ। বাম্পার ফলনে হাসি ফুটেছে চট্টগ্রামের রাউজান উপজেলার চার কৃষকের। মোহাম্মদ নাজিম উদ্দিন,জামাল, বাবুল, মঈন মিলে ডাবুয়া ইউনিয়নের রোঙ্গের বিলে ৭৫ একর জমিতে তরমুজ চাষ করেছেন। ৫০ লাখ টাকার বেশি ঋণ নিয়ে চাষাবাদে নেমে তারা।বাম্পার ফলনে কোটি টাকার আয়ের স্বপ্ন দেখছেন তারা।উপজেলা কৃষি বিভাগের সূত্রে জানা যায়,এবার রাউজানে ৭২ হেক্টর জমিতে তরমুজের চাষাবাদ হয়েছে। এর মধ্যে ডাবুয়া ইউনিয়নের রোঙ্গের বিলে দলবদ্ধভাবে চার জন কৃষক ৬৪ হেক্টর জমিতে তরমুজ চাষ করেন।এছাড়াও রাউজান পৌরসভা, হলদিয়া, চিকদাইর, কদলপুর, পাহাড়তলী, রাউজান সদর ইউনিয়ন মিলে ৮ হেক্টর জমিতে তরমুজ চাষ করেছেন ৫০জন কৃষক। ডাবুয়া ইউনিয়নের ৫নম্বর ওয়ার্ডের রোঙ্গের বিলে তরমুজ চাষি মোহাম্মদ নাজিম উদ্দিন,জামাল, বাবুল ও মঈন বলেন,৫০ লাখ টাকার বেশি ঋণ নিয়ে প্রায় আড়াইশ কানি জমিতে তরমুজ চাষ করেছি। ইতোমধ্যে ফলন আসতে শুরু হয়েছে।আমাদের টার্গেট রমজান মাসে বিক্রি করবো। দামও ভালো পাবো বলে আশা করছি।তবে শুষ্ক মৌসুমে খালগুলো শুকিয়ে শৌচির,পানির সেচ দিতে না পারায় ক্ষেতের চারা শুকিয়ে যাচ্ছে।এক কিলোমিটার দূরের পুকুর ও ডোবা থেকে পাইপে পানি টেনে এনে ক্ষেত বাঁচিয়ে রাখার চেষ্টা করা হচ্ছে। ভাল করে পানি দিতে পারলে ফলন আরও ভালো হবে। ফলন ভালো হলে বাজারেও দাম ভালো পাবো। রাউজান উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা ইমরান হোসেন বলেন, রাউজানে ৭২ হেক্টর জমিতে তরমুজ চাষাবাদ হয়েছে। যাতে অনাবাদি না থাকে সেজন্য নোয়াখালি থেকে তরমুজ চাষে অভিজ্ঞতা সম্পন্ন কৃষক এনে তরমুজ চাষ করা হয়েছে। আশাকরি কৃষকেরা লাভবান হবেন। রাউজানের তাপমাত্রা বেশি হওয়ায় মাটি গরম হয়ে কিছু লতা মারা যাচ্ছে। প্রদর্শনীগুলোতে বীজসহ সব ধরনের সহায়তা প্রদান করা হয়েছে। আবহাওয়া শেষ পর্যন্ত অনুকূলে থাকলে উৎপাদনও অনেক ভালো হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

আজকের দিন-তারিখ
  • শুক্রবার (রাত ২:৪০)
  • ১৪ই জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ
  • ৮ই জিলহজ, ১৪৪৫ হিজরি
  • ৩১শে জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ (গ্রীষ্মকাল)
পুরানো সংবাদ
সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
 
১০১১১২১৩১৪১৫১৬
১৭১৮১৯২০২১২২২৩
২৪২৫২৬২৭২৮২৯৩০