ইডেন গার্ডেন স্কুল এন্ড কলেজের বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতার পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠান সম্পন্ন

 

আবদুল কাদির জীবন, সিলেট মহানগর প্রতিনিধি : মুহিবুর রহমান ফাউন্ডেশনের প্রতিষ্ঠাতা ও চেয়ারম্যান, বিশিষ্ট শিক্ষাবিদ, অধ্যাপক মো. মুহিবুর রহমান বলেন, খেলাধুলা ও সাংস্কৃতিক কর্মকান্ড শিক্ষার্থীদের মেধাকে বিকশিত করে। মানুষের সাথে মিশতে শিখায়, উদার হতে শিখায়, সৃজনশীল হতে নিজেকে উদ্ভুদ্ধ করে। তাছাড়া সুস্থ সংস্কৃতি ছেলেমেয়েদের নতুন কিছু শিখতে উৎসাহিত করে। ইডেন গার্ডেন স্কুল অ্যান্ড কলেজের শিক্ষকরা ছাত্রছাত্রীদের সুন্দর ভবিষ্যত তৈরী করতে নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছেন। আশাকরি শিক্ষার্থীরা তাদের মেধা ও যোগ্যতা দিয়ে দেশ সমাজ ও জাতির কল্যাণে কাজ করবে।

মঙ্গলবার (২১ মার্চ-২০২৩) দুপুর ১২ ঘটিকার সময় সিলেট নগরীর মিরাবারস্থ ইডেন গার্ডেন স্কুল অ্যান্ড কলেজের বার্ষিক ক্রীড়া ও সাংস্কৃতিক সপ্তাহ ২০২৩’র পুরস্কার বিতরণী ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

ইডেন গার্ডেন স্কুল অ্যান্ড কলেজের অধ্যক্ষ, বিশিষ্ট শিক্ষাবিদ অধ্যাপক মো.ফরিদ আহমদের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন কলেজের রেক্টর আ.ন.ম. ইয়াহইয়া।

ইডেন গার্ডেন স্কুল অ্যান্ড কলেজের ইংরেজি শিক্ষক আবদুল কাদির জীবনের উপস্থাপনায় অনুষ্ঠানে মহাগ্রন্থ আলকোরান থেকে তেলাওয়াত করেন ৫ম শ্রেণীর ছাত্র ইজাজ আহমদ তালহা, গীতা পাঠ করেন চতুর্থ শ্রেণির ছাত্র অজিত চন্দ্র শরত, জাতীয় সংগীত পরিবেশনা করেন কলেজের প্রভাষক সুজাউল কবির শামীম। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ও সভাপতি কে সম্মাননা স্মারক প্রদানের মাধ্যমে অনুষ্ঠানের মূল কার্যক্রম শুরু হয়।

অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন কলেজের হিসাব বিজ্ঞান বিভাগের প্রভাষক ও বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতার আহবায়ক পিংকু চক্রবর্তী, শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন কলেজের বাংলা বিভাগের প্রভাষক মুনাইম হুসাইন ও কলেজের সিনিয়র শিক্ষক ও প্রাইমারি শাখার ভর্তি কমিটির আহবায়ক মিফতাহুল আলম।

সভাপতির বক্তব্যে কলেজের অধ্যক্ষ ফরিদ আহমদ বলেন, শিক্ষার্থীদের দুচোখ ভরা স্বপ্ন। আমরা তাদের সেই স্বপ্নকে বাস্তবে রুপান্তরিত করতে আমাদের প্রাণপণ চেষ্টা করে যাচ্ছি। শিক্ষার্থীদের মেধাবী হওয়ার আগে ভালো মানুষ হতে হবে। ভালো মানুষের মধ্যে মেধাবীরা বাস করে কিন্তু মেধাবীর মধ্যে ভালো মানুষ বাস করে না। তোমরা এখন থেকে ভালো কাজ করতে থাক, কারণ ভালো কাজ নিজেকে প্রস্পুটিত ও আলোকিত মানুষ হিসেবে গড়ে তোলে। তোমরা তোমাদের পিতামাতা ও শিক্ষকদের মান্য করতে হবে। তোমরা আগামী দিনে দেশকে নেতৃত্ব দেবে। এজন্য দেশের প্রতি ভালোবাসা থাকতে হবে। দেশের জন্য কাজ করতে হবে।

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে আ.ন.ম. ইয়াহইয়া বলেন, শিক্ষার্থীদের সুন্দর ভবিষ্যৎ তৈরি করতে হলে তোমাদের অনেক বেশি পড়াশোনা করতে হবে। তোমাদের আজকের কষ্ট ও পরিশ্রম আগামী দিনের সুন্দর পথের পাথেয় হবে। তোমাদের জানার আগ্রহ থাকতে হবে। বেশি জানতে হবে। জ্ঞানের তৃষ্ণা থাকতে হবে। তাহলেই তোমরা সুন্দর ভবিষ্যৎ তৈরি করতে পারবে।

অনুষ্ঠানে বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতা ও সাংস্কৃতিক সপ্তাহ-২০২৩’এ বিভিন্ন ইভেন্টে প্রথম স্থান অর্জন করে যারা পুরস্কার পেয়েছেন ঐশিক হালদার ( কেজি ২, খেলনা কুড়ানো), আব্দুল আলী আদিয়ান (প্লে, বল নিক্ষেপ), উবায়েদ বিন ফারুক (কেজি ১, বল নিক্ষেপ), সাফায়েত ইভান ( দ্বিতীয় শ্রেণী, ৫০ মি. দৌড়), উমারা আহমেদ (দ্বিতীয় শ্রেণি, ৫০ মি. দৌড়), উমারা আহমেদ ( দ্বিতীয় শ্রেণী, চকোলেট দৌড়), আতাউল হক রোহান (চতুর্থ শ্রেণি, মারবেল দৌড়), জিৎ চন্দ্র (৫ম শ্রেণী, ১০০ মি. দৌড়), মুনতাসা আক্তার ফাইকা (৫ম শ্রেণী, ১০০ মি. দৌড়), নাঈম উদ্দিন মাহি (৮ম শ্রেণী, মোড়গ লড়াই), নিহা (১০ম, মিউজিক্যাল চেয়ার), রাহমা আক্তার চৌধুরী (৯ম, সুঁই সুতা দৌড়), ইজাজ আহমদ তালহা (৫ম শ্রেণী, মেমোরি টেস্ট),শেখ মুজিবুর রহমান (৯ম শ্রেণী, বস্তা দৌড়), জিয়াউর রহমান ইমন (দ্বাদশ শ্রেণী, মোড়গ লড়াই), শাহানুর আক্তার করবি (দ্বাদশ শ্রেণী, মিউজিক্যাল চেয়ার)। অভিভাবক পুরস্কার গ্রহণ করেন হাফিজা আক্তার (পিলো পাসিং), কলেজের শিক্ষক দোলন চৌধুরী দোলা (মিউজিক্যাল চেয়ার), ও কলেজের প্রভাষক সুজাউল কবির শামীম।

বিভিন্ন ইভেন্টে দ্বিতীয় স্থান অর্জন করে যারা পুরস্কার পেয়েছেন কল্লোল ভট্টাচার্য (প্লে, বল নিক্ষেপ), ওবায়েদ বিন ফারুক (কেজি-১, খেলনা কুড়ানো), আলী আহমেদ সাফোয়ান (কেজি-২, বল নিক্ষেপ), অরণ্য তীর্ত (২য় শ্রেণী, ৫০ মি. দৌড়), আজওয়া তাহসিন রাহা (২য় শ্রেণী, ৫০ মি. দৌড়), স্বপ্নীল তালুকদার ঋক (৩য় শ্রেণী, মারবেল দৌড়), মো. রেদুয়ান আহমেদ (৬ষ্ঠ শ্রেণী, ১০০ মি. দৌড়), মাহিয়া আক্তার চৌধুরী (৫ম শ্রেণী, ১০০ মি. দৌড়), তন্নি ইসলাম তাকমিন (৭ম শ্রেণী, সুঁই সুতা দৌড়), খন্দকার ওমর আদিব (৬ষ্ঠ শ্রেণী, মেমোরি টেস্ট), মাহমুদুল হোসেন শুভ (৯ম শ্রেণী, বস্তা দৌড়), রাহমা আক্তার চৌধুরী (৯ম শ্রেণী, মিউজিক্যাল চেয়ার), রুপা আক্তার (দ্বাদশ শ্রেণী, মিউজিক্যাল চেয়ার), মোদাব্বির আলী রিফাত (দ্বাদশ শ্রেণী, মোড়গ লড়াই), আজওয়া তাহসিন রাহা (২য় শ্রেণী, চকোলেট দৌড়), শরৎ চন্দ্র (বিশেষ পারফরম্যান্স)। অভিভাবকদের মধ্যে পুরস্কার গ্রহণ করেন ঝুমা রাণী দাশ (পিলো পাসিং), তাছাড়া কলেজের শিক্ষকদের মধ্যে পুরস্কার গ্রহণ করেন কলেজের প্রভাষক জাকারিয়া তালুকদার (মিউজিক্যাল চেয়ার)।

বিভিন্ন ইভেন্ট প্রতিযোগিতায় ৩য় স্থান অর্জন করে পুরস্কার গ্রহণ করেন আরাধ্যা ভট্টাচার্য্য রাই (প্লে, বল নিক্ষেপ), কৃষ্ণেন্দু ভট্টাচার্য্য (কেজি-১, বল নিক্ষেপ), কল্লোল ভট্টাচার্য্য (প্লে, খেলনা কুড়ানো), জাওয়াদ হাসান পিনন (১ম শ্রেণী, ৫০ মি. দৌড়), সাফায়েত ইভান (২য় শ্রেণী, চকোলেট দৌড়), কাজী আলীফ আনিকা আজমীন (১ম শ্রেণী, ৫০ মি. দৌড়), নাজিফা জান্নাত (৩য় শ্রেণী, মারবেল দৌড়), ইজাজ আহমদ তালহা (৫ম শ্রেণী, ১০০ মি. দৌড়), ফাবিহা বেগম ফারিহা (৬ষ্ঠ শ্রেণী, ১০০ মি. দৌড়), আহমাদ বিন রেজা চৌধুরী (৯ম শ্রেণী, মোড়গ লড়াই), সাবিহা আক্তার (৯ম শ্রেণী, মিউজিক্যাল চেয়ার), ফারহিন আক্তার ফাইজা( ৭ম শ্রেণী, সুঁই সুতা দৌড়), মো. রেদুওয়ান আহমদ (৬ষ্ঠ শ্রেণী, মেমোরি টেস্ট), সোহান সরকার (৭ম শ্রেণী, বস্তা দৌড়), ফাহমিদা বেগম (দ্বাদশ শ্রেণী, মিউজিক্যাল চেয়ার), ফেরদৌস আহমদ নাবিল (দ্বাদশ শ্রেণী, মোড়গ লড়াই)। অভিভাবকদের মধ্যে ৩য় পুরস্কার গ্রহণ করেন রুলিয়া পারভ (পিলো পাসিং), কলেজের শিক্ষকদের মধ্যে ৩য় পুরস্কার গ্রহণ করেন কলেজের সরকারি শিক্ষক তাসনুভা আহমেদ (মিউজিক্যাল চেয়ার), কলেজকে সিনিয়র শিক্ষক মিফতাউল আলম (মিউজিক্যাল চেয়ার)।

অনুষ্ঠানের শেষপর্বে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে নৃত্য পরিবেশন করেন সাবিহা আক্তার (৯ম শ্রেণী), মাইশা আক্তার (৮ম শ্রেণী), হুমায়রা জান্নাত তাহা (৫ম শ্রেণী), জুমা ইসলাম (৭ম শ্রেণী), মাহতাব উদ্দিন আমান (১ম শ্রেণী), এবং গান পরিবেশন করেন একাদশ শ্রেণীর ছাত্রী ইভা আক্তার প্রমুখ বিজ্ঞাপ্তি।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

আজকের দিন-তারিখ
  • বৃহস্পতিবার (রাত ২:২৮)
  • ২৩শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ
  • ১৫ই জিলকদ, ১৪৪৫ হিজরি
  • ৯ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ (গ্রীষ্মকাল)
পুরানো সংবাদ
সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
 
১০১১১২
১৩১৪১৫১৬১৭১৮১৯
২০২১২২২৩২৪২৫২৬
২৭২৮২৯৩০৩১