চিলমারীতে ব্রহ্মপুত্রের পাড়ে হিন্দু ধর্মাবলম্বীদের অষ্টমীর স্নান সম্পন্ন হয়েছে 

হাবিবুর রহমান, চিলমারী (কুড়িগ্রাম) প্রতিনিধিঃ কুড়িগ্রামের চিলমারীতে ব্রহ্মপুত্র নদের তীরে হিন্দু ধর্মাবলম্বীদের ঐতিহ্যবাহী অষ্টমীর স্নান অনুষ্ঠিত হয়েছে। প্রায় ৪শত বছর ধরে প্রতি বছরের চৈত্র মাসের শুক্ল পক্ষের অষ্টমী তিথিতে ব্রহ্মপুত্র নদের তীরে এই ঐতিহ্যবাহী অষ্টমীর স্নান উৎসব অনুষ্ঠিত হয়ে আসিতেছে। হিন্দু ধর্মের মতে এটি একটি পূন্য কর্ম এবং স্নানের স্থানটি তীর্থ স্থান বলে মনে করেন তারা। এবারে পঞ্জিকা হিসাব অনুযায়ী গতকাল মঙ্গলবার রাত ১০টা থেকে শুরু হয়ে আজ বুধবার রাত ১০টা পর্যন্ত থাকবে অষ্টমীর স্নানের সময়। আজ (বুধবার) বুধা অষ্টমী হওয়ায় স্নানের জন্য কোন নির্দিষ্ট লগ্ন ছিল না। পুরো ২৪ ঘন্টাই ছিল স্নানের সময়। তাই দুর-দুরান্তে থেকে আসা পূন্যার্থীরা সারাদিন ব্যাপী নিজেদের সুবিধামত সময়ে স্নানকার্য্য সম্পন্ন করেন। হে মহা ভগ ব্রহ্মপুত্র, হে লৌহিত্য, তুমি আমার পাপ হরণ করো। এই মন্ত্র উচ্চারণ করে ব্রহ্মার নিকট কৃপা চেয়ে স্নান উৎসবে মেতে উঠেন লক্ষ লক্ষ পূণ্যার্থীরা। প্রায় ৫ লক্ষাধীক পূণ্যার্থীর পদচারনায় মূখরিত হয়ে উঠেছিল চিলমারীর ব্রহ্মপুত্র নদের পাড়ের প্রায় চার কিলোমিটার এলাকা। উপজেলার থানাহাট ইউনিয়নের পুটিমারী থেকে রমনা ইউনিয়নের রমনা ঘাট পর্যন্ত ছিল স্নানের স্থানের জায়গা।স্নান উৎসবকে ঘিরে কয়েকদিন আগে থেকেই দেশের বিভিন্ন প্রান্ত হতে পূণ্যার্থীর ভিড় জমে উঠেছিলেন চিলমারী নদী বন্দর (ব্রহ্মপুত্রের) নদের পাড়ে। রংপুর থেকে স্নান উৎসবে আসা পূন্যার্থী বিউটি রানী, পাটগ্রাম থেকে আসা চন্দন দাস, রৌমারী থেকে আসা জিতেন চন্দ্র, ঠাকুরগাঁ  থেকে আসা পার্বতী রাণী, রাণীগঞ্জ থেকে আসা শুটকু চন্দ্র শীল ও সুমন চন্দ্র শীল জানান (বুধবার) আমাদের বুধা অষ্টমী হওয়ায় অষ্টমীর স্নানের আনন্দ অনেকটা বেশী হয়েছে। কেননা ১২ বছর পর পর আমরা একবার বুধা অষ্টমী পেয়ে থাকি, তাই অনেক কষ্ট করে স্নান করতে এসেছি, পরিবেশ ভাল থাকায় স্নান করে অনেক তৃপ্তিও পেয়েছি। অষ্টমী স্নান উৎসব কমিটির ভাষ্যমতে প্রতি বছরের মত এবার ও ভারত, নেপাল, ভুটানসহ দেশের বিভিন্ন স্থান থেকে আসা ৫ লক্ষাধীক পূণ্যার্থী যোগ দিয়েছেন অষ্টমীর স্নান উৎসবে। স্নান উৎসবটি বুধবার অনুষ্ঠিত হওয়ায় ভারত ও নেপাল থেকে বেশি সংখ্যক হিন্দু ধর্মাবলম্বী এসেছিলেন বলে ধারনা করা হচ্ছে। এ দিকে ঐতিহ্যবাহী এই স্নান মেলার জন্য নির্দিষ্ট ঘাট না থাকায় প্রায় চার কিলোমিটার এলাকাজুড়ে উন্মুক্ত স্নানঘাটে পূণ্যার্থীরা স্নানপর্ব সম্পন্ন করেছেন।স্নান উপলক্ষে কঠোর নিরাপত্তার ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। দুর-দুরান্ত থেকে আসা পূন্যার্থীদের নিরাপত্তার জন্য বাংলাদেশ পুলিশ, র‍্যাব, আনসার ও ভিডিপির পর্যাপ্ত সদস্য মোতায়েন করাসহ ঝুঁকিপূর্ণ স্থান গুলোতে পুলিশী বাহিনীর পাহারার ব্যবস্থা করা হয়েছিল। অষ্টমীর স্নান উৎসব কমিটির আহবায়ক শ্রীঃ বিষু চন্দ্র বর্মন বলেন, শান্তিপূর্ন পরিবেশে অষ্টমীর স্নান সম্পন্ন হয়েছে, এবারে দেশ-বিদেশের প্রায় ৫লাখ পূণ্যার্থী স্নান উৎসবে যোগ দিয়েছিল। তিনি আরো জানান, পরিবেশ অনুকূলে থাকায় অন্যান্যবারের তুলনায় এবারে পূন্যার্থীর সংখ্যা অনেক বেশী হয়েছিল বলে মনে করেন তিনি।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

আজকের দিন-তারিখ
  • বুধবার (রাত ১১:৩১)
  • ১৯শে জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ
  • ১৩ই জিলহজ, ১৪৪৫ হিজরি
  • ৫ই আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ (বর্ষাকাল)
পুরানো সংবাদ
সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
 
১০১১১২১৩১৪১৫১৬
১৭১৮১৯২০২১২২২৩
২৪২৫২৬২৭২৮২৯৩০