বগুড়ায় ১২ হাজার লিটার সয়াবিন তেল জব্দ

স্টাফ রিপোর্টার : বগুড়ায় ভোজ্যতেল কৃত্রিম সংকট সৃষ্টি করে গুদামে মজুত রেখে অধিক মুনাফা করার বিষয়ে দৈনিক বগুড়ায় সংবাদ প্রকাশের পর জেলা প্রশাসন নড়েচড়ে বসে। বুধবার বগুড়া শহরের নামাজগড় এলাকায় জেলা প্রশাসনের ভ্রাম্যমাণ আদালত এবং কাহালু উপজেলার বাজারে জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদফতর জেলা কার্যালয়ের অভিযানে দুই ব্যবসায়ীর গুদাম ও ব্যবসা প্রতিষ্ঠান থেকে পূর্ব মুল্যের প্রায় ৭ হাজার লিটার বোতলজাত সয়াবিন তেল জব্দ করা হয়। এছাড়া এক ব্যবসায়ীকে এক লাখ টাকা জরিমানা এবং জব্দকৃত সয়াবিন তেল পূর্বের মুল্যে ভোক্তাদের কাছে বিক্রির নির্দেশ দেয়া হলে জেলা ও থানা পুলিশের সহযোগিতায় তেলগুলো ভোক্তারা ১৬০ টাকা মুল্যে ক্রয় করেন।

সংশ্লিষ্ট সুত্রে জানা গেছে, বুধবার সকালে বগুড়া শহরের নামাজগড় এলাকায় লক্ষী ট্রেডার্স নামে একটি ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের গুদামে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করেন বগুড়া জেলা প্রশাসনের এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট জান্নাতুল নাইম। আদালত পরিচালনাকালে ওই গুদামে থাকা ৬৮৪ লিটার বোতলজাত সয়াবিন তেল পাওয়া গেলে সেগুলো জব্দ করা হয়। জব্দকৃত সয়াবিন তেলের বোতলের গায়ে পূর্বমূল্য ১৬০ টাকা লিটার লেখা ছিল।

বগুড়া জেলা প্রশাসনের এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট জান্নাতুল নাইম জানান, লক্ষী ট্রেডার্স নামে ওই প্রতিষ্ঠানটির মালিকের নাম সঞ্জিত জয়শোয়াল। তার গুদাম থেকে এক লিটারের ১৮টি বোতল ভর্তি ৩৮টি কার্টুনে মোট ৬৮৪ লিটার সয়াবিন তেল জব্দ করা হয়। এসব বোতলের গায়ে পূর্বের খুচরামূল্য ১৬০ টাকা লেখা ছিল। এ সময় ওই ডিলার ভ্রাম্যমাণ আদালতকে বিক্রয় রসিদ দেখিয়ে নিশ্চিত করেন, পাইকারি পর্যায়ে তিনি ১৫৬ টাকা লিটার দরে ভোজ্যতেল বিক্রি করছেন।

এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট জান্নাতুল নাইম বলেন, পূর্বের মুল্যের সয়াবিন তেলগুলো অবৈধভাবে জব্দ করায় জব্দকৃত সয়াবিন তেল তাৎণিক ভোক্তাদের কাছে ১৬০ টাকা লিটার দরে বিক্রির নির্দেশ দেয়া হয়। এরপর আদালতের নির্দেশে তাৎণিক খুচরা ক্রেতাদের কাছে ১৬০ টাকা লিটার দরে বোতলজাত সয়াবিন তেলগুলো বিক্রি করা হয়। এজন্য ওই ডিলারকে কোনো জরিমানা করা হয়নি।

এদিকে জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদফতর বগুড়া জেলা কার্যালয়ের সহকারী পরিচালক ইফতেখারুল আলম রিজভী জানান, বুধবার দুপুরে কাহালু বাজারে ভোজ্যতেলের অবৈধ মজুদদারের বিরুদ্ধে অভিযান পরিচালনা করা হয়। অভিযানকালে আরিফুল ইসলাম আরিফ নামে এক ব্যবসায়ীর ডিপার্টমেন্টাল ষ্টোর ও গুদামে অবৈধভাবে থাকা পূর্বমুল্যের প্রায় ৬ হাজার লিটার বোতলজাত সয়াবিন তেল পাওয়া যায়। অবৈধভাবে রাখায় সেগুলো জব্দ করা হয়। এই অপরাধে ওই ব্যসায়ীকে এক লাখ টাকা জরিমানা করা হয়েছে। এছাড়া জব্দকৃত তেলগুলো খোলা বাজারে ভোক্তাদের কাছে পূর্বমুল্যে বিক্রির নির্দেশ দেয়া হলে জেলা পুলিশ ও থানা পুলিশের সহযোগিতায় ভোক্তারা তেলগুলো ক্রয় করেন।

অপরদিকে, বগুড়ার গাবতলীতে এক ব্যবসায়ীর গুদাম থেকে মজুত করা ৫ হাজার লিটার সয়াবিন তেল জব্দ করে খোলাবাজারে সুলভমূল্যে বিক্রি করার নির্দেশ দিয়েছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত। একই সাথে সয়াবিন তেলের কৃত্রিম সংকট তৈরী করে অধিক মূল্যে বিক্রি করার অপরাধে ওই ব্যবসায়ীর ২ লাখ টাকা জরিমানা করা হয়েছে। বুধবার দুপুরে উপজেলার দূর্গাহাটা বাজারে এই ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করা হয়।

জানা গেছে, গাবতলীর দূর্গাহাটা ইউনিয়নের মাটিয়ানচড়া গ্রামের বাসিন্দা সমাজ উন্নয়ন কর্ম (সার্ক) এনজিও’র নির্বাহী পরিচালক আশরাফুল ইসলাম স্বপন (৪৮) দীর্ঘদিন থেকে দূর্গাহাটা বাজারে তীর সয়াবিন তেলের ডিলার হিসেবে ব্যবসা পরিচালনা করে আসছিলেন। গতকাল দুপুরে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ আইনে উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) মিজানুর রহমান পুলিশের সহযোগিতায় আশরাফুল ইসলাম স্বপনের ওই ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে এক সাঁড়াশি অভিযান চালিয়ে ৫ হাজার লিটার সয়াবিন তেল জব্দ করে খোলাবাজারে সুলভমূল্যে বিক্রি করার নির্দেশ দেন এবং ২লাখ টাকা জরিমানা আদায় করেন। এ্যাসিল্যান্ড মিজানুর রহমান স্থানীয় সাংবাদিকদের জানান, তেলের বোতলে ১শ’ ৬০ টাকা লেখা সয়াবিন তেল ক্রেতাদের কাছে চড়ামূল্যে বিক্রি করা উদ্দেশ্যে গুদামে মজুত করে রেখেছিল ৪ হাজার ৫শ’ লিটার তীর সয়াবিন তেল এবং গাবতলী সাহেব বাজার থেকে ৫শ’ লিটার তীর সয়াবিন তেল উদ্ধার করা হয়। সবগুলো তেলই খোলাবাজারে ১শ’ ৬০ টাকা দরে বিক্রি করার নির্দেশ দেয়া হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

আজকের দিন-তারিখ
  • বৃহস্পতিবার (রাত ৮:১৬)
  • ২রা ফেব্রুয়ারি, ২০২৩ খ্রিস্টাব্দ
  • ১১ই রজব, ১৪৪৪ হিজরি
  • ১৯শে মাঘ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ (শীতকাল)
পুরানো সংবাদ
সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
 
১০১১১২
১৩১৪১৫১৬১৭১৮১৯
২০২১২২২৩২৪২৫২৬
২৭২৮