পলাশের ওসি পরিচয়ে টাকা দাবী প্রতারকের, উঠিয়ে নেয়ার হুমকি

পলাশ (নরসিংদী) প্রতিনিধি : নরসিংদীর পলাশ থানার ওসি মোহাম্মদ ইলিয়াছের পরিচয় দিয়ে অজ্ঞাত এক প্রতারক দুই জনের কাছ থেকে মোবাইল ফোনের মাধ্যমে ৩৫ হাজার টাকা পাঠানোর দাবী করেছে। রবিবার বিকেলে পলাশ উপজেলা মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তার কার্যালয়ের প্রশিক্ষক সালমা সরকার ও একই অফিসের মুহাম্মদ আসাদুজ্জামানের মুঠোফোনে প্রতারণা ফাঁদ পেতে ওসির নাম বলে এই টাকা দাবী করা হয়।

ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে পলাশ উপজেলা মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা রেহানা পারভীন জানান, ঘটনাটি তারা আমাকে জানালে তাদের থানায় জিডি করার পরামর্শ দেই।

এ ঘটনায় রবিবার রাতে পলাশ উপজেলা মহিলা বিষয়ক কার্যালয়ের অফিস সহকারী কাম কম্পিউটার অপারেটর মুহাম্মদ আসাদুজ্জামান ও সোমবার দুপুরে প্রশিক্ষক সালমা সরকার পলাশ থানায় সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করেন।

সালমা সরকার জানান, রবিবার বিকেলে অপরিচিত এক নাম্বার থেকে (০১৩২৪০২৪৪৬১) তার মুঠোফোনে পলাশ থানার ওসি পরিচয়ে একজন ফোন করেন। এসময় তিনি ফোনে বলেন, ভুল করে আপনার নাম্বারে ১৫ হাজার ৫০০ টাকা পাঠিয়েছে। এই টাকা আপনাকে নগদের মাধ্যমে ফেরত পাঠাতে হবে। না পাঠিয়ে বাসা থেকে বের হলে পুলিশ ফোর্স দিয়ে তুলে নিবে। এসময় ফোনে সালমা সরকারের চাকরির বিভিন্ন দিক তুলে ধরে হুমকি ও অশ্লীল ভাষায় গালিগালাজ করেন কথিত ওসি।

সালমা সরকার আরও বলেন, এসময় বিকাশে টাকা আসছে কী না যাচাই না করে, টাকা না পাঠাতে চাইলে তিনি আমাকে মাদক মামলায় ফাঁসিয়ে দেওয়াসহ বাসা থেকে তুলে নিয়ে যাবার হুমকি দেন। এ ঘটনার পর আমি পলাশ থানার ওসির মোবাইল নাম্বার সংগ্রহ করে তাকে বিস্তারিত জানিয়ে সোমবার দুপুরে থানায় সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করি।

এদিকে একই দিন বিকেলে একই অফিসের অফিস সহকারী কাম কম্পিউটার অপারেটর মুহাম্মদ আসাদুজ্জামানকেও পলাশ থানার ওসি পরিচয়ে মুঠোফোনে একই নাম্বার থেকে কল করে টাকা পাঠাতে বলেন।

মুহম্মদ আসাদুজ্জামান বলেন, পলাশ থানার ওসি পরিচয়ে আমার মুঠোফোনে কল করে জানান, ১৫ হাজার টাকা বিকাশে পাঠাতে গিয়ে ভুল করে আমার একাউন্টে পাঠিয়েছেন। তাই তিনি টাকা ফেরত পাঠাতে বলেন। এসময় বললাম আমার নাম্বারে তো বিকাশ একাউন্ট খোলা নেই তখন তিনি জানান, বিকাশ একাউন্ট করে টাকা উঠিয়ে নিবেন এখন আমি একটি নগদ একাউন্টের নাম্বার দিচ্ছি এই নাম্বারে দ্রুত ১৫ হাজার টাকা পাঠিয়ে দেন।

আসাদুজ্জামান বলেন, স্যার একাউন্ট খুলে টাকা উঠিয়ে বিকেলে দেই তখন তিনি আমাকে ফোর্স দিয়ে বাসা থেকে তুলে নিয়ে আসবে বলে হুমকি দেন এবং অশ্লীল ভাষায় গালিগালাজ করেন। ওসির পরিচয়ে তিনি আরও বলেন, আমার পরিচিত কোন বিকাশের দোকান আছে কী না যেখান থেকে টাকা পাঠাতে পারবো। আমি বললাম আমার কোন পরিচিত দোকান নেই।

পরে তিনি আমার অফিসের তিনজন সহকর্মীর নাম বলে তাদের কাছ থেকে টাকা নিয়ে পাঠাতে বলেন। এক পর্যায়ে আমাকে ফোনকলে রেখে আমাদের এক সহকর্মীর মুঠোফোনে কানেক্টে করে দেন। পরে সেই সহকর্মীর কাছে ১৫ হাজার টাকা না থাকার কারণে দিতে পারেনি। ওসি পরিচয়ে তিনি আমাকে তুলে নেওয়ার হুমকি দেওয়ায় খুবই ভীত ও দুর্বল হয়ে পড়ি। পুনরায় এ ঘটনায় চেয়ে বড় ধরণের ঘটনা ঘটতে পারে বলে আশংকাবোধ করছি। এজন্য পলাশ থানায় রাতেই সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করেছি।

পলাশ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ ইলিয়াছ জানান, অভিযোগকারীদের যে নাম্বারে ফোন করে প্রতারক টাকা পাঠাতে বলেছে সেই নাম্বারটি রাঙ্গামাটিতে ব্যবহার করা হচ্ছে। আমরা তাকে আটক করার চেষ্টা করছি।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

আজকের দিন-তারিখ
  • মঙ্গলবার (সন্ধ্যা ৭:০৪)
  • ৬ই ডিসেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ
  • ১২ই জমাদিউল আউয়াল, ১৪৪৪ হিজরি
  • ২১শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ (হেমন্তকাল)
পুরানো সংবাদ
সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
 
১০১১
১২১৩১৪১৫১৬১৭১৮
১৯২০২১২২২৩২৪২৫
২৬২৭২৮২৯৩০৩১