মতলব উত্তরে ৪৯ তম গ্রীষ্মকালীন ক্রীড়া প্রতিযোগিতার পুরস্কার বিতরণ

নাঈম মিয়াজী:
চাঁদপুরের মতলব উত্তর উপজেলায় ৪৯ তম বাংলাদেশ জাতীয় স্কুল, মাদরাসা ও কারিগরি শিক্ষা গ্রীষ্মকালীন ক্রীড়া প্রতিযোগিতা ও পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়েছে।
বৃহস্পতিবার দুপুরে শেখ রাসেল মিনি স্টেডিয়ামে ক্রীড়া প্রতিযোগিতার পুরস্কার বিতরনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন , উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বীর মুক্তিযোদ্ধা এমএ কুদ্দুস।
উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) আশরাফুল হাসানের সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথির বক্তব্য দেন, উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান মোতাহার হোসেন খান সুফল।
ওটারচর উচ্চ বিদ্যালয়ের সিনিয়র শিক্ষক ও দৈনিক সময়ের আলোর ষ্টাফ রিপোর্টার ঢালী কামরুজ্জামান হারুনের সঞ্চালনায় বক্তব্য দেন, উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা আবদুল কাইয়ুম খান, মতলব উত্তর উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি ও গজরা ইউপি চেয়ারম্যান শহিদ উল্লাহ প্রধান,একাডেমিক সুপারভাইজার সাইফুল ইসলাম, ইমামপুর পল্লীমঙ্গল উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক সরকার আবুল কালাম আজাদ ও সুজাতপুর নেছারিয়া উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক শাহাজালাল প্রমুখ।
 উপস্থিত ছিলেন, উপজেলা আওয়ামী লীগের অর্থ বিষয়ক সম্পাদক মিজানুর রহমান, বাগানবাড়ী ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুল্লাহ আল মামুন, জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের কৃষি বিষয়ক সম্পাদক সুজন ভূঁইয়া, জেলা ছাত্রলীগের গ্রন্থনা ও প্রকাশনা উপ-সম্পাদক নুরুজ্জামান খান’সহ উপজেলার প্রতিটি বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক ও ক্রীড়া শিক্ষকবৃন্দ।
গ্রীষ্মকালীন ওই বর্ণাঢ্য জাতীয় ক্রীড়া প্রতিযোগিতার সমাপনী অনুষ্ঠানের ফুটবল টুর্নামেন্টে প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণ ফাইনাল খেলায় নিশ্চিন্তপুর উচ্চ বিদ্যালয় দল ৩-০ গোলের ব্যবধানে ইমামপুর পল্লী মঙ্গল উচ্চ বিদ্যালয় দলকে হারিয়ে উপজেলা পর্যায়ে চ্যাম্পিয়ন হওয়ার গৌরব অর্জন করে।
এছাড়াও বিভিন্ন ইভেন্ট প্রতিযোগিতায় বিভিন্ন ক্যাটাগরিতে উপজেলার কয়েকটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের বিজয়ী শিক্ষার্থীদের মাঝে পুরস্কার বিতরণ করা হয়। উক্ত চূড়ান্ত প্রতিযোগিতায় খেলা উপভোগ, বক্তব্য উপস্থাপন ও পুরস্কার বিতরণ করেন প্রধান অতিথি’সহ বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের প্রধান শিক্ষক, সহকারী শিক্ষক-শিক্ষিকাবৃন্দ, মাদ্রাসার সুপার ও শিক্ষার্থীবৃন্দ প্রমুখ।
উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বীর মুক্তিযোদ্ধা এমএ কুদ্দুস বলেছেন, সুস্থ ও সবল জাতি গড়তে ক্রীড়ার কোনো বিকল্প নেই। মাদক ও অপসংস্কৃতি থেকে তরুণ সমাজকে দূরে রাখতে ক্রীড়াই অন্যতম শক্তি। বঙ্গবন্ধুর জন্ম না হলে বাংলাদেশ হতো না। আর বাংলাদেশ না হলে আমরা এখনো পাকিস্তানি কলোনিতে থাকতাম। পাকিস্তানি জান্তার বুটের নিচে থাকার যে অসম্মান তা থেকে আমাদের পরিত্রাণ দিয়েছেন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান।
তিনি আরো বলেন, আমাদের সন্তানদের ক্রীড়ার দিকে উৎসাহ ও অনুপ্রেরণা দিতে হবে। সুস্বাস্থ্য নিয়ে সফল একটি জাতি গঠনে ক্রীড়ার বিকল্প নেই। মাদক ও অপসংস্কৃতি থেকে সমাজকে দূরে রাখতে ক্রীড়া অন্যতম ভূমিকা পালন করে। ক্রীড়া শক্তিকে বিকশিত করতে পারলেই আমাদের উন্নয়ন হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

আজকের দিন-তারিখ
  • বৃহস্পতিবার (বিকাল ৪:২৬)
  • ৬ই অক্টোবর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ
  • ১০ই রবিউল আউয়াল, ১৪৪৪ হিজরি
  • ২১শে আশ্বিন, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ (শরৎকাল)
পুরানো সংবাদ
সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
 
১০১১১২১৩১৪১৫১৬
১৭১৮১৯২০২১২২২৩
২৪২৫২৬২৭২৮২৯৩০
৩১