May 24, 2022, 3:20 am

News Headline :
হজ ব্যবস্থাপনায় প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের ৯ নির্দেশনা চট্টগ্রামে ওসি প্রদীপের স্ত্রী আত্মসমর্পণের পর কারাগারে ই-কমার্স ব্যবসায় প্রতারণা বন্ধে হাইকোর্টের একগুচ্ছ নির্দেশনা মুক্তিযোদ্ধা আবদুর রব এর ১৪তম মৃত্যুবার্ষিকীতে আমরা মুক্তিযোদ্ধার সন্তান চাঁদপুর জেলার  শ্রদ্ধার্ঘ্য অপর্ণ চাঁদপুর শহরের নতুন আলিমপাড়ায় প্রবাসীর বাসায়  দূর্ধ্বর্ষ চুরি! স্বর্নালংকার ও নগদ অর্থ লুট পিরোজপুরের নেছারবাদ উপজেলা আওয়ামীলীগের বর্ধিত সভা অনুষ্ঠিত ১১ দিনের ব্যবধানে ফুলবাড়ীর দু’টি হত্যা মামলায় ৬ জনের ফাঁসি,৪ জনের যাবজ্জীবন পলাশে রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় নারী মুক্তিযোদ্ধার দাফন সম্পন্ন পলাশে উন্নতজাতের গাভী লালন-পালন বিষয়ে প্রশিক্ষণ নীলকমল ইউপি চেয়ারম্যানের পরিবারের বিরুদ্ধে গৃহকর্মীকে মারধরের অভিযোগ মিথ্যা ও বানোয়াট।

মেসির জার্মানি দুঃখ, জার্মানিরও দুঃখ মেসি

বাঁ প্রান্ত থেকে আন্দ্রে শুরলের কাটব্যাক…বক্সের ভেতরে বল পেলেন মারিও গোটশে…বাঁ পায়ের দুর্দান্ত শট…বল জড়িয়ে যাচ্ছে জালে— ব্রাজিল বিশ্বকাপের ফাইনালের দুঃস্বপ্নটা অনেক দিনই তাড়া করবে লিওনেল মেসিকে। অতিরিক্ত সময় শেষ হওয়ার মিনিট সাতেক আগে ওই গোলটি আর্জেন্টাইন ফরোয়ার্ডের হাহাকার হয়েই থাকবে অনেক দিন। গত দেড় বছরে কতদিন যে এই দুঃস্বপ্ন দেখে আর্জেন্টাইন ফরোয়ার্ডের ঘুম ভেঙেছে কে জানে।

অবশ্য জার্মান ক্লাবগুলো দাবি করতে পারে, একদম ঠিক আছে! এটা প্রকৃতিরই বিচার! আবির্ভাবের পর থেকেই যে বার্সেলোনার জার্সিতে জার্মানির ক্লাবগুলোকে এমন দুঃস্বপ্ন উপহার দিয়ে এসেছেন মেসি।

বুধবার চ্যাম্পিয়নস লিগের গ্রুপপর্বের শেষ ম্যাচে বেয়ার লেভারকুসেনের সঙ্গে ১-১ গোলে ড্র ম্যাচে গোল করেছেন বার্সা ‘নাম্বার টেন।’ এই গোলটি দিয়েই একটা রেকর্ড হয়ে গেছে মেসির। ইউরোপিয়ান ক্লাব পর্যায়ে জার্মান ক্লাবগুলোর বিপক্ষে যেকোনো খেলোয়াড়ের সর্বোচ্চ গোলদাতা এখন এই ২৮ বছর বয়সী আর্জেন্টাইন ফরোয়ার্ড।
২০০৫/০৬ মৌসুমে গ্রুপপর্বে ভেরডার ব্রেমেনের বিপক্ষে গোল দিয়ে শুরু। বুধবারের ম্যাচটি নিয়ে এরপর আরও ১২ ম্যাচ খেলেছেন, তাতে গোল এসেছে আরও ১৪টি। সব মিলিয়ে ১৩ ম্যাচে ১৫ গোল। এ তালিকায় তাঁর সঙ্গে কার জোর প্রতিযোগিতা চলছে অনুমান করতে পারেন? খুবই শিশুতোষ একটা অনুমান — ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো। জার্মান দলগুলোর বিপক্ষে পর্তুগিজ ফরোয়ার্ডের গোল ১৪টি।

জার্মানিতে আবার মেসির পছন্দ-অপছন্দও আছে। গোল করার জন্য সবচেয়ে ‘পছন্দে’র দল বেয়ার লেভারকুসেনই। ১৫ গোলের ৭টিই এসেছে এই দলটির বিপক্ষে। ২০১২ সালে শেষ ষোলোর দ্বিতীয় লেগে এক ম্যাচেই তো করেছিলেন ৫ গোল!

দ্বিতীয় পছন্দ বায়ার্ন মিউনিখ। মেসি-বায়ার্ন বললেই গত মৌসুমের চ্যাম্পিয়নস লিগে সেমিফাইনালের প্রথম লেগে দুর্দান্ত গোল দুটির কথা মনে পড়ার কথা। ওগুলো ছাড়াও বাভারিয়ানদের বিপক্ষে মেসির গোল আছে আরও দুটি। এ ছাড়া আর্জেন্টাইন ফরোয়ার্ড ৩ গোল করেছেন স্টুটগার্টের বিপক্ষে। বাকি ১ গোল তো ওই যে ভেরডার ব্রেমেনের বিপক্ষে গোলটি, যেটি দিয়ে জার্মান দলগুলোর বিপক্ষে গোলের ‘উৎসব’ শুরু করেছিলেন মেসি।

অবশ্য এত গোল করেও মেসির দুঃস্বপ্ন ঘুচবে বলে মনে হয় না। বিশ্বকাপের সঙ্গে ক্লাব প্রতিযোগিতার কোনো তুলনা হয় নাকি! বিশ্বকাপ তো বিশ্বকাপই। মেসি নিজেই তো একটি বিশ্বকাপের বিনিময়ে তাঁর ক্যারিয়ারের সব অর্জন বিলিয়ে দিতে প্রস্তুত। জার্মানির কাছে বিশ্বকাপ হারানোর দুঃখ কী আর ক্লাবগুলোর বিপক্ষে এমন আরও একশটি গোল করলেও মিটবে? কখনো না! তথ্যসূত্র: গোলডটকম।

নিউজটি শেয়ার করুন


© All rights reserved © greenbanglanews.com
Design, Developed & Hosted BY ALL IT BD