রাজনৈতিক দলে ৩৩% নারীর ক্ষমতায়ন আবারও সুনিশ্চিত করার দাবি

নিউজ ডেস্কঃ রাজনৈতিক দলের কমিটিতে নারীর ৩৩ শতাংশ প্রতিনিধিত্বের বিধান পরিবর্তনের ইঙ্গিতে তীব্র প্রতিবাদ জানিয়েছে বাংলাদেশ মহিলা পরিষদ। বুধবার সন্ধ্যায় (৩ মে) বাংলাদেশ মহিলা পরিষদের সভাপতি ডা. ফওজিয়া মোসলেম এবং সাধারণ সম্পাদক মালেকা বানু স্বাক্ষরিত এক বিবৃতিতে এ প্রতিবাদ জানানো হয়। বিবৃতিতে তারা বলেন, আমরা সংবাদমাধ্যমে জানতে পারলাম যে, নারীর রাজনৈতিক ক্ষমতায়নে সরকারের গৃহীত বিভিন্ন পদক্ষেপের অন্যতম পদক্ষেপ ‘২০২০ সালের মধ্যে সব রাজনৈতিক দলের কমিটিতে ৩৩% নারী থাকতে হবে’ বিধান রেখে ২০০৯ সালে নির্বাচন কমিশন থেকে যে জনপ্রতিনিধিত্ব অধ্যাদেশ জারি করা হয়েছিল, ২০২০ সালে এসে নির্বাচন কমিশনের পক্ষ থেকে তা পরিবর্তন করার ইঙ্গিত পাওয়া যাচ্ছে।

বাংলাদেশ মহিলা পরিষদ এর তীব্র প্রতিবাদ জানায়। আমরা মনে করি এই পরিবর্তনের চিন্তা-ভাবনা নারীর ক্ষমতায়নের ক্ষেত্রে একটি পশ্চাৎমুখী পদক্ষেপ। আমরা জানি রাজনৈতিক দলের বিভিন্ন স্তরের কমিটিতে অন্তর্ভুক্ত হলে নারীরা দলীয় সিদ্ধান্তগ্রহণ প্রক্রিয়ায় অংশ নেয়ার সুযোগ পান।

প্রসঙ্গত, নারীর রাজনৈতিক ক্ষমতায়ন ত্বরান্বিত করার লক্ষ্যে রাজনৈতিক দলের সর্বস্তরে ২০২০ সালের মধ্যে এক-তৃতীয়াংশ নারীর প্রতিনিধিত্ব বাধ্যতামূলক করার বিধান ২০০৯ সালে সংশোধিত গণপ্রতিনিধিত্ব আদেশ, ১৯৭২-এ যুক্ত করা হয়, যাতে রাজনীতিতে নারীর দৃশ্যমান অংশগ্রহণ নিশ্চিত করা যায়। এই অধ্যাদেশের ফলে তৃণমূলের নারীদের রাজনৈতিক সিদ্ধান্তগ্রহণ প্রক্রিয়ায় অংশগ্রহণের সুযোগ তৈরি হয়েছিল, যা বাংলাদেশের নারী আন্দোলনের দীর্ঘদিনের দাবি ছিল। এ ৩৩ শতাংশ নারী নেতৃত্ব প্রতিষ্ঠার মাধ্যমে  রাজনৈতিক ভাবে নারীর ক্ষমতায়ন কে আরও সুদৃঢ় করেছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

আজকের দিন-তারিখ
  • বুধবার (রাত ১২:২৭)
  • ২৬শে জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ
  • ২০শে জিলহজ, ১৪৪৫ হিজরি
  • ১২ই আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ (বর্ষাকাল)
পুরানো সংবাদ
সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
 
১০১১১২১৩১৪১৫১৬
১৭১৮১৯২০২১২২২৩
২৪২৫২৬২৭২৮২৯৩০